kalerkantho


পাবনায় চার্চের প্রহরীকে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা

আটক ৩ সন্দেহভাজন

পাবনা প্রতিনিধি   

১১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০




পাবনায় চার্চের প্রহরীকে

কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা

পাবনার চাটমোহর উপজেলায় একটি ক্যাথলিক চার্চের এক নৈশ প্রহরীকে কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। গত বৃহস্পতিবার রাত ৩টার দিকে মুথরাপুর ক্যাথলিক চার্চের ফটকে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

আহত নৈশ প্রহরী গিলবার্ট ডি কস্তাকে (৬৫) পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁর বাড়ি চাটমোহর উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের লাউতিয়া গ্রামে।

ওই হামলায় জড়িত সন্দেহে গতকাল ভোরে তিন যুবককে আটক করেছে পুলিশ। তারা হলো লাউতিয়া গ্রামের রাজিব হোসেন, মুরাদ হোসেন ও ফরিদ মৃধা। গিলবার্টের নাতনিকে উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় তারা এই হামলা করতে পারে বলে পুলিশ ধারণা করছে।

পাবনা জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. আল আকসার আনন জানান, গিলবার্টের দুই হাত, দুই পা, মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তাঁর বাম হাতের একটি আঙুল বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। গতকাল শুক্রবার সকালে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে তাঁর অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে।

পাবনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গিলবার্ট জানান, প্রায় ছয় বছর ধরে তিনি ওই চার্চে নৈশ প্রহরীর দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

বৃহস্পতিবার রাত আড়াইটা থেকে ৩টার মধ্যে তিন যুবক চার্চের পশ্চিম দিকের ভাঙা দেয়াল টপকে ভেতরে প্রবেশ করে। তাদের প্রত্যেকের হাতে ধারালো অস্ত্র ছিল। দুর্বৃত্তরা তাঁর কাছে ফাদারের ঘরের চাবি চায়। তিনি তাদের ঠেকাতে গেলে দুর্বৃত্তরা তাঁকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়।

গিলবার্টের ভাই বকুল ডি কস্তা এবং চার্চের কর্মী মার্টিন জানান, গিলবার্টের চিৎকারে চার্চের অন্যরা তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখান থেকে পরে তাঁকে পাবনা জেনালের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পাবনার পুলিশ সুপার জিহাদুল কবীর জানান, বৃহস্পতিবার রাতে হামলার খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা অভিযানে নামে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে গতকাল ভোরে লাউতিয়া গ্রামের তিন যুবককে আটক করা হয়েছে।

পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস জানান, গ্রেপ্তার তিন যুবকের মধ্যে দুজন গিলবার্টের ওপর হামলায় সরাসরি জড়িত ছিল বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয়েছে। হামলাকারীরা গিলবার্টের কিশোরী নাতনিকে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করত। এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় হামলাকারীরা গিলবার্টকে দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়েছিল। এ প্রেক্ষাপটেই গিলবার্টের ওপর হামলা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

চাটমোহর মথুরাপুর ক্যাথলিক চার্চের সহকারী পাল-পুরোহিত ফাদার উত্তম রোজারিও কালের কণ্ঠকে জানান, চার্চের মধ্যে দুজন ফাদার, পাঁচজন সিস্টার, হোস্টেলে ৬৫ জন মেয়েসহ অন্যান্য কর্মী থাকেন। এই হামলার ঘটনায় চার্চের সবাই আতঙ্কিত। তিনি বলেন, ব্যক্তিগত কারণে হোক বা অন্য যেকোনো কারণেই হোক, চার্চের মধ্যে ঢুকে এই হামলা পুরো খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের ওপরই হামলা। তিনি অবিলম্বে এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি দাবি জানান।

চাটমোহর থানার ওসি এস এম আহসান হাবিব গতকাল দুপুরে জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।


মন্তব্য