kalerkantho


বাসে উঠতে গিয়ে শিক্ষার্থী লাশ

তিনজনের অস্বাভাবিক মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১০ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



বাসে উঠতে গিয়ে শিক্ষার্থী লাশ

সড়কগুলোতে যানবাহনের ওভারটেকিং যেন সাধারণ ঘটনা। এর ফলে বাড়ছে দুর্ঘটনা। ছবিটি মিরপুর-আশুলিয়া সংযোগ সড়ক থেকে তোলা। ছবি : কালের কণ্ঠ

প্রতিদিনের মতো গতকাল বৃহস্পতিবার কোচিং করতে বের হয়েছিল ‘এ’ লেভেলের শিক্ষার্থী সাজেদি সালেহিন শুভ (১৮)। পড়া শেষে ব্যক্তিগত কাজ সেরে গোড়ানের বাসায় ফেরার কথা ছিল তার।

কিন্তু যাত্রীবাহী বাসে উঠতে গিয়ে ঘটেছে জীবনের পরিসমাপ্তি। শুভ বাসে ওঠার আগেই বেপরোয়া গতিতে চালানো শুরু করে চালক। আর ছিটকে চাকার নিচে পড়ে পিষ্ট হয় সে। এ ঘটনায় বাসসহ চালককে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর মত্স্য ভবন মোড়ে ঘটেছে এই মর্মান্তিক ঘটনা।

বাবা শাহ আলম সরকার শানু জানান, পরিবার নিয়ে খিলগাঁওয়ের দক্ষিণ গোড়ানের ২৩২ নম্বর বাড়িতে বসবাস করেন। গ্রামের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা থানার হারঘরে। দুই ছেলের মধ্যে শুভ বড়। ব্রিটিশ কাউন্সিলের অধীন প্রথম পর্ব শেষ করে, দ্বিতীয় পর্বে পড়ছিল শুভ।

সকালে বাসা থেকে বেরিয়ে আরামবাগে কোচিংয়ে যায়। ব্যক্তিগত প্রয়োজনে মত্স্য ভবন গিয়ে দুপুর দেড়টার দিকে যাচ্ছিল ধানমণ্ডি। এ সময় মত্স্য ভবন মোড়ে বাসে ওঠার সময় দুর্ঘটনার শিকার হয় সে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বর্ণনা মতে, রংধনু পরিবহনের একটি বাসে উঠতে গেলে সেটি জোরে টান দেয়। তখন শুভ পা ফসকে নিচে পড়ে ওই গাড়ির চাকায় পিষ্ট হয়। প্রথমে তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে এবং পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

শাহবাগ থানার ওসি আবুল হাসান জানান, এ ঘটনায় রংধনু পরিবহনের বাস ও এর চালক নুরুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে। থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।

গতকাল রাজধানীতে আলাদা ঘটনায় ইডেন কলেজের এক ছাত্রীসহ তিনজনের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। কলেজের হলে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন ইডেনের ছাত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস (২৩)। মিরপুরে সোনিয়া আক্তার (১৬) নামের এক এসএসসি পরীক্ষার্থী এবং তুরাগে গৃহবধূ সুফিয়া মণ্ডল (১৮) আত্মহত্যা করেছেন। পুলিশ তাঁদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ ও স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

লালবাগ থানা পুলিশ জানায়, গতকাল সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ইডেন মহিলা কলেজের বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুননেসা মুজিব হলের দ্বিতীয় তলার রিডিং রুম থেকে জান্নাতুল ফেরদৌস নামের এক ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। জান্নাতুল ফেরদৌস কেমিস্ট্রি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। তাঁর গ্রামের বাড়ি দিনাজপুরে। তিনি হলের ২১০ নম্বর কক্ষে থাকতেন।

লালবাগ থানার এসআই কামাল বলেন, ‘আমরা রিডিং রুম থেকে ওড়না দিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় ছাত্রীর লাশ উদ্ধার করেছি। পরে ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। ’

মিরপুরে সোনিয়ার মৃত্যু নিয়ে বাবা আবদুল মজিদ জানান, মনিপুর এলাকায় তাঁদের একটি চা বিক্রির দোকান আছে। সন্তানদের নিয়ে বসবাস এ এলাকাতেই। গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহে। সোনিয়া মিরপুর ন্যাশনাল বাংলা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এ বছর এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছে। গতকাল দুপুরে ভাইয়ের সঙ্গে কথাকাটাকাটি হলে ঘরের আড়ার সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস নেয়।

এ ছাড়া গতকাল দুপুরে তুরাগের নলভোগ ফরিদ মিয়ার ভাড়াটিয়া সুফিয়া মণ্ডল নামের এক গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।


মন্তব্য