kalerkantho


কলকাতায় গ্রেপ্তার ইদ্রিস গুলশান হামলায় জড়িত বলে সন্দেহ

নিজস্ব প্রতিবেদক, কলকাতা ও ঢাকা   

১০ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



কলকাতার বড় বাজার এলাকার কুলুটোলার একটি বাড়ি থেকে মহম্মদ ইদ্রিস নামের এক বাংলাদেশি যুবককে গ্রেপ্তার করেছে স্থানীয় পুলিশের বিশেষ টাস্কফোর্স বা এসটিএফ। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টেলিজেন্স ব্যুরোর (আইবি) তথ্য পেয়ে সম্প্রতি তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গত বছর ১ জুলাই ঢাকার গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলার ঘটনায় ইদ্রিস জড়িত বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট গোয়েন্দারা। গতকাল বৃহস্পতিবার কলকাতার প্রথম সারির ইংরেজি দৈনিক দ্য টেলিগ্রাফের খবরে এমনটাই দাবি করা হয়েছে।

ইদ্রিস গ্রেপ্তারের খবরে বাংলাদেশেও তত্পরতা শুরু হয়েছে। গতকাল পুলিশ সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক বলেছেন, ভারতের সংবাদমাধ্যমে খবর আসার ব্যাপারটি জেনেছে পুলিশ। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সে (ইদ্রিস) গুলশান হামলায় জড়িত কি না, তা জানতে তাকে (বাংলাদেশে) এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। ’

পত্রিকার খবরের সত্যতার বিষয়ে জানতে কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজিব কুমার ও স্পেশাল টাস্কফোর্সের প্রধান কলকাতা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার বিশাল গর্গের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তাঁরা এ বিষয়ে কিছু বলেননি।

ইংরেজি পত্রিকাটির সংশ্লিষ্ট রিপোর্টার অবশ্য এই প্রতিবেদকে জানিয়েছেন, কলকাতা পুলিশের সদর দপ্তর লালবাজারের খুব কাছে সন্দেহভাজন ওই জঙ্গি আত্মগোপন করেছিলেন বেশ কয়েক মাস। আর সেটা কলকাতা পুলিশ টের পায়নি। সেই তথ্য ছিল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টেলিজেন্স ব্যুরোর কাছে।

টেলিগ্রাফের প্রতিবেদনে আরো দাবি করা হয়েছে, গুলশান হামলার পরই ইদ্রিস কলকাতায় আত্মগোপন করেন। সেখান থেকেই তিনি নিয়মিত হায়দরাবাদের জেএমবির শীর্ষ নেতা সালেহীনের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করতেন। শুধু তাই নয়, ইদ্রিস মিয়ানমারের রোহিঙ্গা তরুণদের জেএমবিতে টানার চেষ্টা করতেন।

কলকাতায় আনুষ্ঠানিকভাবে ইদ্রিসের গ্রেপ্তারের খবর প্রকাশ করা হবে কি না তা এখনো অনিশ্চিত হলেও ইংরেজি পত্রিকাটির দাবি, এরই মধ্যে তাঁকে গ্রেপ্তারের খবরটি ঢাকায় পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটকে জানানো হয়েছে।


মন্তব্য