kalerkantho


সংবিধান মানুষের জন্য : ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১০ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সংবিধান মানুষের জন্য, মানুষের প্রতিনিধিরাই সংবিধান প্রণয়ন করেন। আওয়ামী লীগ বলছে, ‘সহায়ক সরকার’ সংবিধানে নেই।

তারা এখন যে সংবিধান তৈরি করেছে, ওটাকে একটা বাইবেল বানিয়ে দিয়েছে। মানে সংবিধানের মধ্যে তিনটা অনুচ্ছেদ আছে, যেটা কোনো দিনই পরিবর্তন করতে পারবে না। তাহলে প্রজাতন্ত্র হলো কী করে? গতকাল বৃহস্পতিবার এক আলোচনাসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি সমর্থক চিকিৎসক সংগঠন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) গতকাল ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে আয়োজন করেছিল আলোচনাসভা। তারেক রহমানের ১১তম কারাবন্দি দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন ড্যাবের সহসভাপতি এম এ কুদ্দুস। সংগঠনের মহাসচিব অধ্যাপক এ জেড এম জাহিদ হোসেন সভা পরিচালনা করেন। এতে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী আহমেদ, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য অধ্যাপক সিরাজউদ্দিন আহমেদ, ড্যাবের অধ্যাপক মোস্তাক রহিম স্বপন, ডা. বজলুল করীম ভুঁইয়া প্রমুখ।

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশে দেশে নিরাপত্তা চুক্তি, সামরিক চুক্তি হয়ে থাকে, ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের চুক্তি হচ্ছে বলে গণমাধ্যমে এসেছে। এ বিষয়ে জনগণ কিছুই জানবে না, এটা তো হতে পারে না।

সরকার দেশের জন্য কী করছে সেটা জানার অধিকার তাদের আছে। এখন পর্যন্ত একটা চুক্তি জনসমক্ষে উপস্থাপন করা হয়নি। গণতান্ত্রিক দেশে চুক্তিগুলো জনগণের সামনে উপস্থাপন করতে হবে। কিন্তু সেটা করা হচ্ছে না।

ভারতের আচরণে ক্ষোভ প্রকাশ করে ফখরুল বলেন, ‘তিস্তাসহ বাংলাদেশের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত নদ-নদীতে পানি আসে না। সীমান্তে বিএসএফ প্রতিনিয়ত আমাদের নাগরিককে মারছে। এ ধরনের ঘটনা পৃথিবীর কোথাও হয় না। কেউ সীমান্ত পেরোলেই গুলি করে মেরে ফেলবে। এর চেয়ে বড় মানবাধিকার লঙ্ঘন আর কিছুই হতে পারে না। ’


মন্তব্য