kalerkantho


জয় বাংলা কনসার্টে তারুণ্যের উচ্ছ্বাস

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



জয় বাংলা কনসার্টে তারুণ্যের উচ্ছ্বাস

গতকাল রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে জয় বাংলা কনসার্ট অনুষ্ঠিত হয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

ঐতিহাসিক সাতই মার্চে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে আরো একবার শাণিত করতে গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে তারুণ্যের উচ্ছ্বাস ছিল কানায় কানায় পূর্ণ। মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় যে স্লোগান সারা বাংলার মানুষকে গেঁথেছে এক সূত্রে, গতকাল মঙ্গলবার বারবার উচ্চারিত হয়েছে সেই প্রিয় স্লোগান ‘জয় বাংলা’।

শুধু এই স্লোগানই নয়, আর্মি স্টেডিয়ামে জনপ্রিয় ব্যান্ড তারকারা শোনালেন মুক্তিযুদ্ধের সাড়াজাগানো গানগুলো। তাঁদের সঙ্গে প্রায় ৫০ হাজার তরুণ-তরুণী গলা মিলিয়েছে, কণ্ঠে তুলে ধরেছে দেশের প্রতি ভালোবাসার ঐকতান।

আর্মি স্টেডিয়ামে ‘জয় বাংলা কনসার্ট’ শিরোনামের এই সংগীত আসরের আয়োজন করে সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) এবং ইয়ং বাংলা প্ল্যাটফর্ম। ১৯৭১ সালে স্বাধীনতার ডাক দেওয়ার দিনটি স্মরণে রাখতে দুই বছর ধরে এই কনসার্টের আয়োজন করা হচ্ছে। গতকাল বিকেল ৪টা ৪০ মিনিটে ইনডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীদের জাতীয় সংগীত পরিবেশনার মধ্য দিয়ে কনসার্ট শুরু হয়। পুরো আর্মি স্টেডিয়ামে উপস্থিত দর্শক-শ্রোতারা তাদের সঙ্গে কণ্ঠ মেলায়। এর পরই ছিল শুধুই সংগীতের লহরী। ‘জয় বাংলা বাংলার জয়’ দিয়ে পরিবেশনা শুরু হয়।

আয়োজনটি বিকেলে শুরু হলেও দুপুর থেকেই আর্মি স্টেডিয়ামের চারপাশে ভিড় জমায় তরুণ শ্রোতারা।

তবে ঘটেনি কোনো বিশৃঙ্খলা। আর্মি স্টেডিয়ামের প্রবেশমুখে দীর্ঘ সারিতে দাঁড়িয়ে প্রবেশ করতে দেখা গেছে নানা বয়সী শ্রোতাদের, যাদের বেশির ভাগই ছিল তরুণ-তরুণী। প্রবেশমুখে দুই দফা তল্লাশিতেও তাদের আগ্রহ-উচ্ছ্বাসে ভাটা পড়তে দেখা যায়নি। স্টেডিয়ামের গ্যালারি ও মাঠ অনেকটাই পূর্ণ হয়ে যায় কনসার্ট শুরুর আগেই।

কনসার্ট উপলক্ষে গোটা স্টেডিয়াম সাজানো হয় শৈল্পিকভাবে। কনসার্ট সামনে রেখে মাঠে নিজেদের প্রকাশনার প্রদর্শনী ও বিক্রির ব্যবস্থা করে সিআরআই ও ইয়ং বাংলা। স্টেডিয়ামের বাইরে রাস্তায় বড় বড় বিলবোর্ডে ছিল একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময়ের সংবাদপত্রের প্রদর্শনী। ভেতরে হোর্ডিংয়েও ছিল নানা ঐতিহাসিক ঘটনা ও সংবাদপত্রের প্রদর্শনী।

কনসার্ট দেখতে উপস্থিত হন বঙ্গবন্ধুর নাতনি সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল ও নাতি রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি। এ ছাড়া সারাক্ষণ স্টেডিয়ামে কনসার্ট তদারকি করেন বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহেমদ পলক।

কনসার্টে গান পরিবেশন করে ওয়ারফেইজ, চিরকুট, আর্বোভাইরাস, লালন, ক্রিপটিকফেট, নেমেসিস, শিরোনামহীন ও শূন্য। নিজেদের গান ছাড়াও কনসার্টে ব্যান্ডদলগুলো গেয়ে শোনায় স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের গানগুলো।

আয়োজকরা জানান, এবার ৬০ হাজারেরও বেশি তরুণ-তরুণী এই আয়োজন স্টেডিয়ামে বসে উপভোগ করে। এ ছাড়া অনলাইনের মাধ্যমেও কনসার্টটি সরাসরি দেখানো হয়।


মন্তব্য