kalerkantho


সেই দুই স্কুল কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে ব্যবস্থার নির্দেশ

বাংলানিউজ   

৭ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



ছাত্রদের শরীরে গড়া সেতুর ওপর দিয়ে জনপ্রতিনিধি হাঁটার ঘটনায় দুই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ায় নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। একইসঙ্গে দুই প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক ও শরীরচর্চা শিক্ষকের বেতন-ভাতা সাময়িকভাবে বন্ধ রাখারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ছাত্রদের শরীরে গড়া সেতুর ওপর দিয়ে জনপ্রতিনিধি হাঁটার ঘটনা প্রমাণের পর চাঁদপুরের হাইমচর উপজেলার নীল কমল ওছমানিয়া উচ্চ বিদ্যালয় এবং জামালপুর জেলার মেলান্দহ উপজেলার মাহমুদপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এবং শরীরচর্চা শিক্ষকের বেতন-ভাতা সাময়িকভাবে বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

গতকাল সোমবার শিক্ষা মন্ত্রণালয় এক আদেশে দুই স্কুলের চার শিক্ষকের বেতন-ভাতা (এমপিও) স্থায়ীভাবে কেন বন্ধ করা হবে না—তার কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের আদেশে বলা হয়েছে, দুই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মাধ্যমে মানবসেতু নির্মাণ ও সেতুর উপর দিয়ে হাইমচর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. নূর হোসেন পাটোয়ারী ও মেলান্দহের মাহমুদপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য দিলদার হোসেন প্রিন্স হেঁটে যাওয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় দুই প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ঢাকা ও কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

গত ৩০ জানুয়ারি ওছমানিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান নুর হোসেন পাটোয়ারী শিক্ষার্থীদের দিয়ে তৈরি প্রতীকী ‘সেতু’র ওপর দিয়ে জুতা পায়ে হেঁটে যান। আর ২৯ জানুয়ারি মাহমুদপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের স্কাউট দলের সদস্যরা একটি মানব সেতু তৈরি করেন। সেই মানব সেতুর ওপর দিয়ে হেঁটে যান অনুষ্ঠানের অতিথি এবং বিদ্যালয়ের জমিদাতা দিলদার হোসেন ওরফে প্রিন্স। এ দুটি ঘটনার ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক সমালোচনা হয়। পরে তদন্ত করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।


মন্তব্য