kalerkantho


গঙ্গার পানি নিয়ে সন্তোষ

নিজস্ব প্রতিবেদক, কলকাতা   

৫ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০




গঙ্গার পানি নিয়ে সন্তোষ

ভারত-বাংলাদেশ যৌথ নদী কমিশনের ৬৫তম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে কলকাতায়। গতকাল শনিবার সকালে কলকাতার গ্র্যান্ড অবেয়রায় হোটেলে অনুষ্ঠিত বৈঠকে গঙ্গার পানিবণ্টন নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন প্রতিনিধিরা।

সূত্র জানায়, সকাল সাড়ে ১০টায় শুরু হয়ে যৌথ নদী কমিশনের বৈঠক শেষ হয়েছে বিকেল ৪টায়। এতে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন যৌথ নদী কমিশনের বাংলাদেশ অংশের চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেইন এবং ভারতের পক্ষে নেতৃত্ব দেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের কমিশনার জে চন্দ্রশেখর লইয়া। ভারত ও বাংলাদেশের মোট ১৬ জন প্রতিনিধি বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে মোজাম্মেল হোসেইন বলেন, ‘ভারত দিয়ে প্রবাহিত গঙ্গার পানির ন্যায্য হিস্যা পাচ্ছে বাংলাদেশ। বিশ বছর ধরে এই চুক্তির কোনো ব্যত্যয় ঘটেনি। আমরা খুশি যে এ বছরেও মোট পানিপ্রবাহের অর্ধেক ঠিক সময়মতোই যাচ্ছে বাংলাদেশে। ’

সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানান, গঙ্গায় আগে ৬০ হাজার থেকে ৭৫ হাজার কিউসেক পানি প্রবাহিত হলেও বর্তমানে তা নেমে দাঁড়িয়েছে ৬৬ হাজার থেকে ৬৭ হাজার কিউসেক। আগের তুলনায় পানির প্রবাহে এখন কিছুটা ভাটা পড়েছে বলে টেকনিক্যাল কমিটির প্রতিনিধিরা মনে করছেন। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে এ তথ্য তাঁরা জানাতে রাজি নন।

শনিবার বৈঠকের আগের দিন বাংলাদেশের প্রতিনিধিরা পশ্চিমবঙ্গের মালদা জেলার ফারাক্কা ব্যারাজ দিয়ে পানিপ্রবাহ ও নাব্যতা পরীক্ষা করে দেখেন। এপ্রিল মাসের প্রথম সপ্তাহে যৌথ নদী কমিশনের পরবর্তী বৈঠক হবে ঢাকায়। এ সময় প্রতিনিধিরা একইভাবে হার্ডিঞ্জ ব্রিজের পানির নাব্যতা যাচাই করবেন।


মন্তব্য