kalerkantho


গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ

সারা দেশে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



সারা দেশে অবস্থান কর্মসূচি

পালন করেছে বিএনপি

গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে গতকাল রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে বিএনপি। ছবি : কালের কণ্ঠ

গ্যাসের দাম বাড়ানোসহ সরকারের গণবিরোধী কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে জনগণকে সোচ্চার করতে চায় বিএনপি। এ জন্য ধারাবাহিক কর্মসূচির চিন্তা করছে তারা।

তবে হরতাল বা অবরোধের মতো কর্মসূচি এখনই দেওয়া হবে না।

গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে গতকাল বৃহস্পতিবার দেশব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে রাজধানীতে দুই ঘণ্টার অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে বিএনপি।

এরপর রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে গ্যাসের দাম বাড়ানোর বিরুদ্ধে প্রচারণা চালাবে তারা। এ জন্য ২৫ জন কেন্দ্রীয় নেতাকে প্রধান করে ২৫টি টিম গঠন করা হয়েছে। আগামী শনি ও রবিবার কেন্দ্রীয় নেতারা নেতাকর্মীদের নিয়ে প্রচারণা চালাবেন। পরে রাজধানীতে বড় সমাবেশ করার চিন্তা রয়েছে। দলটির একাধিক সূত্র এসব তথ্য জানিয়েছে।

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী আহমেদ বলেন, ‘গ্যাসের মূল্য বাড়ানো অযৌক্তিক। আমরা জনগণের স্বার্থে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচির মাধ্যমে তাদের উজ্জীবিত করতে চাই, যাতে সরকার বাধ্য হয় সিদ্ধান্ত বাতিল করে।

যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, ‘শনি ও রবিবার আমাদের কর্মসূচি রয়েছে। আগামী দিনে জনসভা বা সমাবেশের মতো কর্মসূচি দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি। ’

দলটির নয়াপল্টন কার্যালয়ের একটি সূত্র জানায়, ভাইস চেয়ারম্যান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও যুগ্ম মহাসচিবদের প্রধান করে ২৫টি টিম গঠন করা হয়েছে। তারা রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে লিফলেট বিলি করে জনগণকে সরকারের গণবিরোধী কর্মকাণ্ডের বিষয়ে সচেতন করবে। তাদের কাছে গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর অযৌক্তিকতা প্রসঙ্গে বলবে।

জানা গেছে, নিউ মার্কেটে ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান, সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালে মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহম্মদ, খিলক্ষেতে শামসুজ্জামান দুদু, বাড্ডা-নতুন বাজারে মো. শাহজাহান, সদরঘাটে ভাইস চেয়ারম্যান আহমেদ আজম খান, কোর্ট-কাছারিতে জয়নুল আবেদীন, প্রেস ক্লাবে ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, কারওয়ান বাজারে আব্দুল আউয়াল মিন্টু, গুলশান-১ এ সেলিমা রহমান, গুলশান-২ এ ব্যারিস্টার শাহাজাহান ওমর, বনানী মার্কেটে মে. জে. (অব.) রুহুল আলম চৌধুরী, আজমপুরে ইনাম আহমেদ চৌধুরী, শাহবাগে ডা. এ জে এম জাহিদ হোসেন, মহাখালীতে মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, গুলিস্তানে চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান, মতিঝিল শাপলা চত্বরে ফজলুর রহমান, চকবাজারে কবির মুরাদ, বায়তুল মোকাররমে হাবিবুর রহমান হাবিব, ফার্মগেটে গোলাম আকবর খন্দকার, মিরপুর-১ এ লুত্ফর রহমান আজাদ, কল্যাণপুরে মিজানুর রহমান মিনু, মিরপুর-১০ গোলচত্বরে জয়নুল আবদিন ফারুক, কাকলী মোড়ে চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, মিরপুর-১১ ও পল্লবীতে আবুল খায়ের ভূঁইয়া, গাবতলীতে আমানউল্লাহ আমান, রাজলক্ষ্মী মার্কেটে জয়নাল আবেদীন ভিপি, খিলগাঁওয়ে হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু, জুরাইনে মনিরুল হক চৌধুরী, নয়াপল্টনে জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী আহমেদ, মোহাম্মদপুর টাউন হলে যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, আসাদ গেটে মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, শাহজাহানপুরে মজিবর রহমান সরোয়ার, যাত্রাবাড়ীতে খায়রুল কবির খোকন, কাকলী-১ এ হারুন উর রশীদ লিফলেট বিলি ও প্রচারণার কাজে নেতৃত্ব দেবেন।

গ্যাসের দাম কমাতে হবে : ফখরুল

গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে গতকাল রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণে কেন্দ্রীয় কর্মসূচি পালন করে বিএনপি। সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত কর্মসূচি চলে।

সমাপনী বক্তৃতায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আমরা এ কর্মসূচির মাধ্যমে সরকারকে বলতে চাই, গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি করা যাবে না। গ্যাসের মূল্য কমাতে হবে। এটা সবার দাবি। ’ তিনি বলেন, ‘এখন সময় হয়েছে আমাদের জেগে উঠবার, এখন সময় হয়েছে আমাদের প্রতিবাদ করবার, আমাদের সোচ্চার হওয়ার। শান্তিপূর্ণ কর্মসূচির মাধ্যমে সরকারকে আমরা বাধ্য করব একটি নিরপেক্ষ, নির্দলীয় সরকারের অধীনে সব দলের অংশগ্রহণে নির্বাচন দিতে। তার মাধ্যমে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা হবে। ’

কর্মসূচিতে স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, কেন্দ্রীয় নেতা সেলিমা রহমান, মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, আবদুল আউয়াল মিন্টু, জয়নাল আবেদীন, আবদুল মান্নান, আহমেদ আজম খান, অধ্যাপক এ জেড এম জাহিদ, নিতাই রায় চৌধুরী, রুহুল কবির রিজভী আহমেদ, মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, এমরান সালেহ প্রিন্স, শামা ওবায়েদ, শহীদুল ইসলাম বাবুল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সহযোগী সংগঠনের নেতাদের মধ্যে ইশতিয়াক আজিজ উলফাত, সাদেক আহমেদ খান, সাইফুল ইসলাম নিরব, সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, আবদুল কাদের ভুঁইয়া, এম এ মালেক, রাজিব আহসান ও আকরামুল হাসান উপস্থিত ছিলেন।

ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, আবার এ সরকার ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির মতো নির্বাচন করতে চায়। দেশনেত্রীর নেতৃত্বে আন্দোলন করে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সব দলের অংশগ্রহণে নির্বাচনের দাবি আদায় করা হবে।


মন্তব্য