kalerkantho


রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সাধারণ আলোচনা

রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সাধারণ আলোচনা

অন্যান্য   

২ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



নিজস্ব প্রতিবেদক
জঙ্গি-সন্ত্রাসীদের সঙ্গে ঐক্যবদ্ধ হয়ে বিএনপি আগুন সন্ত্রাসের মাধ্যমে দেশ ধ্বংস করতে চেয়েছিল বলে দাবি করেছেন সরকারদলীয় সংসদ সদস্যরা। গতকাল বুধবার রাতে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে তাঁরা বলেন, আন্দোলনে ব্যর্থ ও জনবিচ্ছিন্ন হয়ে এখন আগামী নির্বাচন নিয়ে তারা নতুন ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। কিন্তু কোনো ষড়যন্ত্র-চক্রান্তই জনগণ সফল হতে দেবে না।

প্রথমে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, পরে ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট মো. ফজলে রাব্বী মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই আলোচনায় অংশ নেন ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ, সরকারি দলের আবদুর রহমান, আয়েন উদ্দিন, মোহাম্মদ হাছান ইমাম খান, মোতাহার হোসেন ও জাহানারা বেগম সুরমা, জাসদের শিরীন আখতার, বিরোধী দল জাতীয় পার্টির ফখরুল ইমাম প্রমুখ।

ভূমিমন্ত্রী বলেন, মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা, ধ্বংসযজ্ঞের যে নৃশংসতা বিএনপি-জামায়াত জোট চালিয়েছে, দেশের মানুষ কোনো দিন তা ভুলবে না। তিনি বলেন, দেশের কিছুসংখ্যক তথাকথিত বুদ্ধিজীবী আছেন যাঁরা স্বাধীনতা, সার্বভৌম ও গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছেন। পদ্মা সেতু নিয়ে ষড়যন্ত্রের ফল হাতেনাতে পেয়েছে বিশ্বব্যাংকসহ জড়িত ষড়যন্ত্রকারীরা।

ফখরুল ইমাম বলেন, ‘আর্থিক খাতে দুর্নীতি ও হরিলুট হলেও জড়িতদের কোনো বিচার হচ্ছে না। বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরিও জনগণের গা সওয়া হয়ে গেছে। খেলাপি ঋণ আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে। আমরা বঙ্গবন্ধুর অর্থনৈতিক আদর্শের প্রতি আস্থা রাখতে পারিনি।



শিরীন আখতার বলেন, দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে তখন নানামুখী ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। একাত্তরের গণহত্যা নিয়ে পাকিস্তান বই লিখে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। তাই অবিলম্বে ২৫ মার্চকে জাতীয়ভাবে গণহত্যা দিবস হিসেবে ঘোষণা করতে হবে।


মন্তব্য