kalerkantho


কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বাংলাদেশ পথনাটক উৎসব শুরু হচ্ছে কাল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বাংলাদেশ পথনাটক উৎসব শুরু হচ্ছে কাল

‘সাম্প্রদায়িকতামুক্ত শিক্ষা চাই, মুক্ত মানবিক দেশ চাই’ স্লোগান নিয়ে আগামীকাল বুধবার শুরু হচ্ছে ‘বাংলাদেশ পথনাটক উৎসব ২০১৭’। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার পাদদেশে বাংলাদেশ পথনাটক পরিষদ আয়োজিত সাত দিনব্যাপী এ নাট্যোৎসবের উদ্বোধন করবেন উপমহাদেশের বিখ্যাত নাট্যকার-নির্দেশক প্রয়াত সফদার হাশমির সহধর্মিণী মলয়শ্রী হাশমি। উৎসবে অংশ নেবে দেশের ৩০টি নাট্যদল। এবার পথনাটক পরিষদের নিয়মিত নাট্য প্রদর্শনীর ২৫ বছর পূর্তি হচ্ছে। এ উপলক্ষে উৎসবের প্রতিদিনই থাকবে বৈচিত্র্যময় লোক আঙ্গিকের নাট্য উপস্থাপনা।

গতকাল সোমবার শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার সেমিনার কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান পথনাটক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আহম্মেদ গিয়াস। এতে আরো বক্তব্য দেন পরিষদের সভাপতি মান্নান হীরা, সহসভাপতি মিজানুর রহমান ও উৎসব আহ্বায়ক ড. মোহাম্মদ বারী। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ শাহনেওয়াজ, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অলোক বসু, প্রচার ও গণযোগাযোগ সম্পাদক আজিজুল পারভেজ প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ‘১৯৯২ সালে পথনাটক পরিষদ গঠিত হওয়ার পর নিয়মিত পথনাটক মঞ্চায়ন করে আসছে। মহান ভাষা আন্দোলনের সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে ২০০২ সাল থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে স্বাধীনতার মাসের প্রথম সপ্তাহে নিয়মিতভাবে পথনাটকের উৎসব করা হচ্ছে। এতে পরিষদভুক্ত সারা দেশের নাট্যদলগুলো তাদের সমসাময়িক পথনাটক মঞ্চায়ন করে থাকে।

নিয়মিত পথনাটক চর্চার রজত জয়ন্তী উপলক্ষে এবারের উৎসবে পথনাটকের পাশাপাশি দেশের ঐতিহ্যবাহী লোকজ আঙ্গিকের পরিবেশনাও থাকবে। প্রথম দিন থাকবে সঙযাত্রা ও ব্রতচারী নৃত্য। ২ মার্চ মণিপুরি শাস্ত্রীয় নৃত্য। ৩ মার্চ রামায়ণ পালা। ৪ মার্চ লাঠিখেলা। ৫ মার্চ মহুয়া সুন্দরী পালা। ৬ মার্চ গম্ভীরা ও ৭ মার্চ পরিবেশিত হবে আলকাপ।

প্রতিদিন বিকেল ৫টা থেকে নাটকের প্রদর্শনী হবে। উদ্বোধনী দিনে দুটি নাটকের দল পথনাটক পরিবেশন করবে। আরণ্যক নাট্যদল পরিবেশন করবে মান্নান হীরার রচিত ও নির্দেশিত পথনাটক ‘মূর্খ লোকের মূর্খ কথা’ এবং গাজীপুরের মুক্তমঞ্চ নাট্যদল পরিবেশন করবে শহিদুল হাসান শামিম রচিত ও তানভীর আহাম্মেদ চৌধুরী নির্দেশিত ‘চোর সমগ্র’।


মন্তব্য