kalerkantho


মেন্টাল অ্যারিথমেটিক প্রতিযোগিতায় অংশ নিল ১৬৭৭ শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০




মেন্টাল অ্যারিথমেটিক

প্রতিযোগিতায় অংশ

নিল ১৬৭৭ শিক্ষার্থী

ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় গতকাল অ্যাবাকাস ও মেন্টাল অ্যারিথমেটিক প্রতিযোগিতায় আমন্ত্রিত অতিথিদের সঙ্গে বিজয়ী দুই শিশু শিক্ষার্থী। ছবি : কালের কণ্ঠ

দশম জাতীয় পর্যায়ের অ্যাবাকাস ও মেন্টাল অ্যারিথমেটিক প্রতিযোগিতা ২০১৭-এ অংশ নিল এক হাজার ৬৭৭ জন শিক্ষার্থী। গতকাল শুক্রবার আলোহা বাংলাদেশের আয়োজনে ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে দেশের প্রায় ৩০০টি স্কুল থেকে এক হাজার ৬৩৩ জন এবং ভারতের ত্রিপুরা আলোহার ৪৪ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। ২০০৮ সাল থেকে বাংলাদেশে এ ধরনের প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আসছে আলোহা বাংলাদেশ।

শিশুরা কত দ্রুত ও নির্ভুলভাবে সমাধানে পৌঁছতে পারে তা যাচাইয়েই এমন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। অংশগ্রহণকারীদের পাঁচ মিনিটের মধ্যে ৭০টি জটিল গাণিতিক সমাধান করতে বলা হয় এবং বেশির ভাগ শিক্ষার্থীই তা করতে সমর্থ হয়। প্রতিযোগিতায় মোট ১৯৯ জনকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। মোহম্মদ রহিম হাসান, আফিয়ান শাফি দৃঢ় ও সারাফ ইসলা নুহিল শতভাগ নম্বর পায়।  

বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন আলোহা মেন্টাল অ্যারিথমেটিকের প্রেসিডেন্ট এবং মালয়েশিয়া অ্যাবাকাস ও মেন্টাল অ্যারিথমেটিক অ্যাসোসিয়েশন সেক্রেটারি লোহ মুন সাঙ। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আলোহা বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলী হায়দার চৌধুরী, চেয়ারম্যান সাইফুল করিম, পরিচালক মোহাম্মদ শামসুদ্দিন প্রমুখ।

চার থেকে ১৪ বছর বয়সী শিশুদের মস্তিষ্কের মানোন্নয়নে আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত আলোহা মেন্টাল অ্যারিথমেটিক মালয়েশিয়া থেকে সর্বপ্রথম বাংলাদেশে নিয়ে এসেছে আলোহা বাংলাদেশ।

এ কর্মসূচি শিশুদের একাগ্রতা, আত্মবিশ্বাস, নিখুঁত পর্যবেক্ষণ, শোনার দক্ষতা ও কল্পনাশক্তির দক্ষতা বাড়াতে সহায়তা করে। এ ছাড়া এই কর্মসূচি শিশুদের খেলার ছলে গণিত শেখা ও সৃষ্টিশীল লেখনীশক্তি বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।


মন্তব্য