kalerkantho


সুনামগঞ্জ-২ উপনির্বাচন

জয়া সেনগুপ্তের মনোনয়নপত্র সংগ্রহে উল্লাস দিরাই-শাল্লায়

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



সদ্যঃপ্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের নির্বাচনী এলাকা সুনামগঞ্জ-২ (দিরাই-শাল্লা) আসনের উপনির্বাচনে তাঁর স্ত্রী ড. জয়া সেনগুপ্ত আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করায় উত্ফুল্ল দিরাই-শাল্লার নেতাকর্মীরা। গতকাল শুক্রবার বিকেলে এই খবর নির্বাচনী এলাকায় পৌঁছলে নেতাকর্মীরা জয়া সেনগুপ্তকে স্বাগত জানিয়ে আনন্দ মিছিল করেছে।

তারা জানিয়েছে, আগামী ৩০ মার্চ আসন্ন উপনির্বাচনে তাঁর জন্য কাজ করতে দিরাই-শাল্লার নেতাকর্মীরা প্রস্তুত।

প্রসঙ্গত, গতকাল বিকেলে রাজধানীর ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে বিকেল সাড়ে ৪টায় সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের স্ত্রী ড. জয়া সেনগুপ্তের পক্ষে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন তাঁর  ছেলে সৌমেন সেনগুপ্ত ও পুত্রবধূ ডা. রাখি সেনগুপ্ত। জয়া সেনগুপ্তের পাশাপাশি এই আসনে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান ও যুক্তরাজ্যপ্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতা শামছুল হক চৌধুরীও মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন।

দিরাই-শাল্লা উপজেলা আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি দিরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভা করে এই আসনে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের পরিবার থেকে প্রার্থী দেওয়ার দাবি জানায়। এই দাবিসংবলিত সভার রেজল্যুশন কেন্দ্রকে লিখিতভাবে অবগত করা হয়। পরে গত বুধবার শাল্লা উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটিও সভা করে একই সিদ্ধান্ত নেয় এবং এর রেজল্যুশনের কপিসহ লিখিত আবেদন করে কেন্দ্র বরাবর। এভাবে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তাঁর স্ত্রী জয়া সেনগুপ্তকে মনোনয়ন দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন দুই উপজেলার নেতারা।

জানা গেছে, গতকাল বিকেলে জয়া সেনগুপ্তের পক্ষে দলের মনোনয়নপত্র সংগ্রহের সময় দিরাই-শাল্লা উপজেলা আওয়ামী লীগের বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিল। এ খবর দুই উপজেলায় এসে পৌঁছলে দলের নেতাকর্মীরা উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে।

গতকাল সন্ধ্যা ৬টায় শাল্লা উপজেলার আনন্দপুর বাজারে স্থানীয় নেতাকর্মীরা আনন্দ মিছিল করেছে।

শাল্লা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মহিমচন্দ্র দাশ বলেন, ‘জয়া সেনগুপ্তের মনোনয়নপত্র সংগ্রহের খবরে দুই উপজেলার সাধারণ নেতাকর্মীরা খুব খুশি। অনেকে ফোন করে আমাদের তাদের আনন্দ-উৎসাহের কথা জানিয়েছে। ’ এই খবরকে স্বাগত জানিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন শাল্লা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল আমীন চৌধুরী ও শাল্লাা উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক সাংবাদিক পিযুষ দাশ।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে জয়া সেনগুপ্ত বলেন, ‘দিরাই শাল্লার আওয়ামী লীগের সর্বস্তরের  নেতামকর্মীরা নির্বাচন করার জন্য আমাকে চাপ দিচ্ছে। আমার স্বামীকে যেভাবে দুই উপজেলার মানুষ আজীবন ভালোবাসত, সেই ভালোবাসা নিয়েই আমার পরিবার দলীয় মনোনয়পত্র সংগ্রহ করেছে। আমার স্বামীর অসমাপ্ত কাজ দিরাই-শাল্লার নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়েই আমি সমাপ্ত করতে চাই। ’


মন্তব্য