kalerkantho


আদালত এলাকায় আটক ব্যক্তি পুলিশের ‘প্রতিরোধে’ নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা   

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



এবার কথিত বন্দুকযুদ্ধে নয়, ডাকাতি প্রতিরোধকালে গুলিবিনিময়ে খুলনায় একজন নিহত হয়েছে বলে পুলিশ দাবি করেছে। নিহত ব্যক্তি একজন চিহ্নিত সন্ত্রাসী বলেও পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার ভোরের দিকে খুলনার হরিণটানা থানা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তি হলো ডুমুরিয়া উপজেলার গুটুদিয়া এলাকার জিয়াউর রহমান সানা ওরফে হাতকাটা জিয়া।

সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার জিয়া খুলনা আদালতে আত্মসমর্পণ করতে যায়। কিন্তু আদালত এলাকা থেকে তাকে আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ। গতকাল সকালে জানা যায়, ডাকাতির চেষ্টাকালে গোলাগুলির ঘটনায় সে নিহত হয়েছে।

হরিণটানা থানার ওসি এম এম মিজানুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, কৈয়া বাজারের কাছে শোলমারী বিধান সড়কে ডাকাতির চেষ্টাকালে পুলিশ একদল দুর্বৃত্তকে প্রতিরোধ করে। এ সময় ডাকাতদল পুলিশকে আক্রমণ করে। একপর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে গুলিবিনিময় হয়। ঘটনাস্থলে এক ডাকাত আহত অবস্থায় পুলিশের হাতে ধরা পড়ে, তার অন্য সঙ্গীরা পালিয়ে যায়।

আহত ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি জানান, এই ঘটনায় উপপরিদর্শক (এসআই) ফরিদসহ চার পুলিশ আহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, একটি পাইপগান, দুটি রামদা ও ৫০টি ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সূত্রে জানা যায়, বোমা বানাতে গিয়ে জিয়াউর রহমান সানার একটি হাত উড়ে যায়। এর পর থেকে তার নাম হয় হাতকাটা জিয়া। অস্ত্রবাজিসহ নানা অপরাধের ঘটনায় তার বিরুদ্ধে একসময় ২০টিরও বেশি মামলা ছিল। বর্তমানে ৯টি মামলা চলছে।


মন্তব্য