kalerkantho


খান ফাউন্ডেশনের সেমিনারে অভিমত

জলবায়ু পরিবর্তন নারীর প্রজনন স্বাস্থ্যে বিরূপ প্রভাব ফেলে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



জলবায়ু পরিবর্তন নারীর যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্যর ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলে। স্কুল থেকে মেয়ে শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়ার জন্য অনেকাংশেই দায়ী করা হয় তাদের প্রজনন স্বাস্থ্য সুরক্ষার ঘাটতির বিষয়টিকে।

গতকাল বুধবার জলবায়ু পরিবর্তনে নারীর যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য অধিকার বিষয়ে এক সেমিনারে বক্তারা এ অভিমত তুলে ধরেন।

রাজধানীর গুলশানে হোটেল বেঙ্গল ব্লুবেরিতে খান ফাউন্ডেশন ও দি এশিয়া প্যাসিফিক রিসোর্স অ্যান্ড রিসার্চ সেন্টার ফর উইমেন (এআরআরওডাব্লিউ) যৌথভাবে এ আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানের গেস্ট অব অনার ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত সোফি অবের বলেন, বাংলাদেশের জন্য জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়টি খুবই আলোচিত, কারণ বাংলাদেশের দীর্ঘস্থায়ী উন্নয়নের ক্ষেত্রে এটা বড় বাধা হিসেবে কাজ করছে। স্কুল থেকে মেয়ে শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়ার জন্য তাদের প্রজনন স্বাস্থ্য সুরক্ষায় অসচেতনতাকেও দায়ী করা হয়।

উদ্বোধনী বক্তব্যে খান ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক অ্যাডভোকেট রোকসানা খন্দকার বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তন এখন খুবই আলোচিত একটি বিষয়। জলবায়ু পরিবর্তন নারীর যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্যর ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলে।

সভাপতির বক্তব্যে সাবেক মন্ত্রী ড. মঈন খান বলেন, ‘প্যারিস চুক্তি বাস্তবায়নের ফলে আমরা কয়েক বছরের মধ্যে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় অনেক কিছু অর্জন করতে পারব বলে বিশ্বাস করি। ’

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন খান ফাউন্ডেশনের চেয়ারপারসন ড. সালেমুল হক। এ ছাড়া নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক মিজান আর খান, ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ড. হামিদুল হক প্রমুখ বক্তব্য দেন।


মন্তব্য