kalerkantho


কুয়াকাটার ৯ জেলে ও একজনের লাশ উদ্ধার মিয়ানমারে

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি   

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



পটুয়াখালীর কুয়াকাটার ৯ জেলেকে সাগর থেকে উদ্ধার করেছে মিয়ানমারের পুলিশ। এ সময় ট্রলার থেকে একজনের লাশও উদ্ধার করা হয়েছে। প্রায় এক মাস আগে সাগরে মাছ ধরতে গিয়ে এ জেলেরা নিখোঁজ হয়েছিল। গত বুধবার মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশের গোয়া শহরের ১৮ মাইল উত্তরের জি গোনি গ্রামের কাছ থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়।

নিহত জেলে কাওসার (১৮) পটুয়াখালীর মহিপুর থানার সদর ইউনিয়নের সেরাজপুর গ্রামের শাহ আলমের ছেলে।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে একটি সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

গোয়া শহরের প্রশাসক ইউ অং লিন মিয়ানমার টাইমসকে বলেছেন, উদ্বারকৃত জেলেদের পোশাক, খাবার ও চিকিৎসাসেবা দেওয়া হচ্ছে। তাদের স্থানীয় একটি পুলিশ ফাঁড়িতে রাখা হয়েছে। ইমিগ্রেশনের মাধ্যমে এসব জেলেকে তাদের দেশে হস্তান্তর করা হবে। মিয়ানমার টাইমস উদ্ধার করা জেলেদের একজনের বরাত দিয়ে জানায়, গত ২৮ জানুয়ারি ইঞ্জিন বিকল হয়ে ভাসতে ভাসতে মিয়ানমার জলসীমানায় চলে আসে এ জেলেরা।

নিখোঁজ জেলেদের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত ১৩ জানুয়ারি কুয়াকাটার মত্স্যবন্দর আলীপুর ঘাট থেকে মাছ ধরতে ‘এফবি ফয়সাল’ ট্রলার নিয়ে গভীর সাগরে যায় ১০ জেলে।

তারা হলো কলাপাড়া উপজেলার লতাচাপলী ইউনিয়নের মাইটভাঙ্গা গ্রামের ট্রলার মাঝি আলী হোসেন গাজী, একই এলাকার জেলে কবির হাওলাদার (৩২), সোবাহান ঘরামী (৪৫), আলমগীর মাতুব্বর (৩৫), নজরুল গাজী (৩২), হাচান হাওলাদার (১৭), মহিপুর ইউনিয়নের সেরাজপুর গ্রামের রুবেল (২৫), জাহিদুল (১৮), কাওছার মুসুল্লী (২৬) ও শামীম (১৬)।

তাদের খোঁজে গত ১ ফেব্রুয়ারি এফবি ফেরদৌস ও এফবি খাদিজা নামের দুটি মাছধরা ট্রলার সাগরে যায়। না পেয়ে দুই দিন পর ট্রলার দুটি আলীপুর মত্স্য অবতরণ কেন্দ্রে ফিরে আসে। নিখোঁজ জেলেদের পরিবারের পক্ষ থেকে মহিপুর থানায় গত ফেব্রুয়ারি একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।


মন্তব্য