kalerkantho


বোনকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করার জের

দুর্গাপুরে ভাইকে রড দিয়ে পেটাল বখাটেরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



দুর্গাপুরে ভাইকে রড দিয়ে পেটাল বখাটেরা

রাজশাহীর দুর্গাপুরে বোনকে উত্ত্যক্ত করে স্বামীকে ঘরছাড়া করার পর এবার ভাইকে রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করেছে এক বখাটে। তার নাম মোহাম্মদ রনি (৩০)।

গত বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার বাজুখলশি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে ভাই জীবনকে (২৫) গুরুতর অবস্থায় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বখাটে রনি নানাভাবে হুমকি-ধমকি দিচ্ছে ওই পরিবারকে। তারা প্রভাবশালী হওয়ায় কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না পুলিশ।

আহত জীবনের বড় ভাই মেহেদি হাসান অভিযোগ করে বলেন, ‘স্কুলজীবন থেকেই আমার বোনকে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করে আসছিল এলাকার বখাটে মোহাম্মদ রনি। রনির অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে বছরখানেক আগে আমার বাবা কফিল উদ্দিন পরিবার নিয়ে চলে আসেন রাজশাহী মহানগরীর শালবাগানে। সেখানে ভাড়া বাসায় থেকে আমার বোনের বিয়ে হয় পাশের হাটকানপাড়া গ্রামে। এরপর সম্প্রতি পরিবার নিয়ে আবার আমরা এলাকায় ফিরে আসি। অন্যদিকে বখাটে রনিও বিয়ে করে।

তার পরও আমার বোনকে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করতে থাকে সে। এমনকি বোনের শ্বশুরবাড়ির আশপাশে গিয়েও উত্ত্যক্ত করে আসছিল রনি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আমার বোনকে তার স্বামী তাড়িয়ে দেন। ফলে মাস সাতেক ধরে আমাদের বাড়িতেই থাকে আমার বোন। এর পর থেকে বখাটে রনি বাড়িতে এসে নানাভাবে সমস্যা সৃষ্টি করতে থাকে। এরই মধ্যে গত বুধবার বিকেলে আমাদের বাড়িতে গিয়ে বোনকে উত্ত্যক্ত করে। এ ঘটনায় ছোট ভাই জীবন প্রতিবাদ করে রনিকে তাড়িয়ে দেন। এরপর জীবন গিয়ে রনির মা-বাবাকে বিষয়টি জানান। থানায় অভিযোগও করে আমার বোন। এ সময় দুর্গাপুর থানার এসআই আব্দুস সালাম বিষয়টি এলাকাতেই মীমাংসার ব্যবস্থা করে দেবেন বলে আমার বোনকে এলাকায় চলে যেতে বলেন। ’

হাসপাতালে আহত জীবন কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘থানা থেকে বাড়ি আসার পর বৃহস্পতিবার বখাটে রনি, তার সহযোগী পিন্টু, রনিসহ সাত-আটজন হাটকানপাড়া বাজার এলাকায় পথ রোধ করে রড ও বাঁশের লাঠি দিয়ে আমাকে পেটাতে থাকে। একপর্যায়ে মৃত ভেবে ফেলে রেখে চলে যায় তারা। পরে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় পরিবারের লোকজন আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। ’

স্থানীয় চেয়ারম্যান সমসের আলী কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বিষয়টি আমিও শুনেছি। মেয়েটির অভিভাবকরা এর আগেই আমাকে অভিযোগ করেছিল। কিন্তু বখাটে রনি ও তার পরিবারের সদস্যদের কারণে বিষয়টি মীমাংসা করা যায়নি। এরই মধ্যে জীবনকে মেরে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে শুনেছি। ’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে দুর্গাপুর থানার ওসি (তদন্ত) কামরুজ্জামান বলেন, ‘একটি লিখিত অভিযোগ আগেই পেয়েছি। তবে মারপিটের বিষয়টি নিয়ে এখনো কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ’


মন্তব্য