kalerkantho


বাণিজ্যমন্ত্রী বললেন

দেশে জঙ্গিবাদ ও উগ্রবাদের পেছনে জিয়াউর রহমানের ভূমিকা রয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ‘দেশে যে জঙ্গিবাদ, উগ্রবাদ মাথাচাড়া দিয়েছিল এবং হলি আর্টিজানের মতো হামলার ঘটনা ঘটেছে, এই সব কিছুর পেছনে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ভূমিকা রয়েছে। ’

গতকাল বুধবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনের সেমিনারকক্ষে একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটি আয়োজিত ‘অধ্যাপক কবীর চৌধুরী স্মারক বক্তৃতা-৬’ ও ‘বাংলাদেশের গণহত্যার জাতীয় ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি’ শীর্ষক আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী।

মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে এ দেশের ৩০ লাখ মানুষ প্রাণ হারিয়েছে পাকিস্তানের হাতে। অবাক লাগে, খালেদা জিয়ার মতো নেত্রী এই শহীদের সংখ্যা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। এটি বলতেও খারাপ লাগে। কারণ আজকের যে পরিস্থিতি, আমরা আলোচনা করি, দেশে জঙ্গির উত্থান হয়েছে, সন্ত্রাসী তত্পরতায় হলি আর্টিজানের মতো ঘটনা ঘটেছে, এই সব কিছুর মূলে ছিলেন জিয়াউর রহমান। ’

আলোচনাসভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও ইতিহাসবিদ ড. মুনতাসীর মামুন ২৫ মার্চকে আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস হিসেব স্বীকৃতি দেওয়ার দাবি জানান। তিনি বলেন, ‘দেশে আন্তর্জাতিক হাত ধোয়া দিবস পালিত হয় অথচ গণহত্যা দিবস পালিত হয় না, এটি খুব লজ্জার। ’

একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির উপদেষ্টামণ্ডলীর সভাপতি বিচারপতি গোলাম রাব্বানীর সভাপতিত্বে ‘অধ্যাপক কবীর চৌধুরী স্মারক বক্তৃতা-৬’ প্রদান করেন মুক্তিযুদ্ধ গবেষক মফিদুল হক। সূচনা বক্তব্য প্রদান করেন নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির। এ ছাড়া বক্তব্য দেন বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য রাষ্ট্রীয় সম্মাননাপ্রাপ্ত ব্রিটিশ সমাজকর্মী জুলিয়ান ফ্রান্সিস, নর্থ আমেরিকান জুরিস্ট অ্যাসোসিয়েশন কানাডা চ্যাপ্টারের সাবেক সভাপতি অ্যাটর্নি উইলিয়াম স্লোন প্রমুখ।

একাত্তরের গণহত্যা সম্পর্কে শাহরিয়ার কবির সম্পাদিত ‘অন রিকগনাইজেশন অব বাংলাদেশ জেনোসাইড’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।


মন্তব্য