kalerkantho


অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

স্ত্রীসহ যুবলীগ নেতা আটক

বরিশাল অফিস   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে এক ব্যাংক কর্মকর্তা ও যুবলীগ নেতাকে স্ত্রীসহ আটক করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। সোমবার সন্ধ্যা ৭টায় নগরীর চৌমাথা এলাকা থেকে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক বরিশাল শাখার সিনিয়র এক্সিকিউটিভ অফিসার জাকির হোসেন রাঢ়ীকে আটক করে দুদকের গোয়েন্দা শাখা। এরপর রাত ৮টায় নগরীর গোড়াচাঁদ দাস রোডস্থ বাসভবন থেকে সিকদার কনস্ট্রাকশনের স্বত্বাধিকারী ও যুবলীগের মহানগর যুগ্ম আহ্বায়ক শাহিন সিকদার এবং তাঁর স্ত্রী নাঈমা রহমানকে আটক করে দুদক।

ঋণসীমা বাড়িয়ে ৩১ লাখ ৬৫ হাজার ৫০০ টাকা আত্মসাতের দায়ে মামলা থাকায় তাঁদের আটক করা হয়। আটকের পর কোতোয়ালি মডেল থানায় তাঁদের হস্তান্তর করা হয়েছে।

বরিশাল দুদক সূত্র জানায়, ২০১৬ সালের ১৯ ডিসেম্বর ব্যাংকের ততকালীন অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মিজানুর রহমান বরাদ্দ হওয়া ঋণের অতিরিক্ত টাকা ভাউচারের মাধ্যমে তুলে আত্মসাতের অভিযোগে সিনিয়র এক্সিকিউটিভ অফিসার জাকির হোসেন রাঢ়ী, যুবলীগের মহানগর যুগ্ম আহ্বায়ক শাহিন সিকদার এবং তাঁর স্ত্রী নাঈমা রহমানের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেন। ওই মামলায় তিনজনের বিরুদ্ধে ৩১ লাখ ৬৫ হাজার ৫০০ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ করা হয়। মামলার পর তদন্তের দায়িত্ব পান  দুদক বরিশাল সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক মতিউর রহমান।

তিনি বলেন, তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় আসামিদের গ্রেপ্তার করতে মাঠে নামে দুদকের গোয়েন্দা টিম। গতকাল রাতে জাকির হোসেন রাঢ়ী নগরীর চৌমাথা এলাকায় অবস্থানকালে গোয়েন্দারা তাঁকে আটক করেন। এরপর শাহিন সিকদার ও তাঁর স্ত্রীকে আটক করা হয়।

কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি শাহ মো. আওলাদ হোসেন বলেন, আসামিদের আদালতে পাঠানো হয়। আদালত তাঁদের জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।


মন্তব্য