kalerkantho


চট্টগ্রামে ছাত্রলীগ কর্মী খুনের ঘটনায় আসামি ছয়জন

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



চট্টগ্রাম নগরের রিয়াজুদ্দিন বাজার এলাকায় সিটি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে সংগঠনের কর্মী ইয়াছিন আরাফাত নিহত হওয়ার ঘটনায় মামলা হয়েছে।

গত সোমবার রাতে ছয়জনকে আসামি করে মামলা করেন তাঁর মা রোকেয়া বেগম।

এ হত্যা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত হারুনের নামও রয়েছে। এ ছাড়া অজ্ঞাতপরিচয় আরো কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে কোতোয়ালি থানার ওসি মো. জসীম উদ্দিন কালের কণ্ঠ’কে বলেন, মামলাটি তদন্তের জন্য উপপরিদর্শক হারুনূর রশিদকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে ওসি বলেন, ঘটনার দিন আহত অবস্থায় আটক হারুনকে হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। এ ছাড়া হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যাওয়া ইরফানসহ অন্য আসামিদের খোঁঁজা হচ্ছে। তিনি বলেন, নতুন করে কোনো আসামিকে এখনো গ্রেপ্তার করা যায়নি। তবে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

হারুন ও ইরফান ছাড়া এজহারভুক্ত অন্য আসামিরা হলেন হৃদয়, আবু বক্কর, তারেক ও আয়ান।

পুলিশ জানায়, গত শনিবার দুপুরে সিটি কলেজে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে বাদানুবাদ হয়।

এরপর বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে রিয়াজুদ্দিন বাজারে সফিনা হোটেল গলিতে একটি হোটেলে দুই পক্ষ আবার বিবাদে জড়ায়। সেখানে ছুরিকাঘাতে মারা যান সরকারি সিটি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কর্মী এবং কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ইয়াছিন আরাফাত (২২)। এ ছাড়া আহত হন হারুন ও ইরফান নামের আরো দুই ছাত্রলীগকর্মী। ঘটনার পর তিনজনকেই চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়। সেখান থেকে ইরফান কৌশলে পালিয়ে যান। কতর্ব্যরত চিকিৎসক ইয়াছিন আরাফাতকে মৃত ঘোষণা করেন এবং হারুনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হারুন এখনো মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।


মন্তব্য