kalerkantho


তিন অপারেটর সহজ পদ্ধতির ভয়েস মেইল চালু করল

বিশেষ প্রতিনিধি   

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



দেশে মোবাইল ফোন অপারেটরদের নিজ উদ্যোগে ভয়েস মেইল সেবা আগে থেকেই রয়েছে। কিন্তু সে প্রক্রিয়াটি জটিল। গ্রাহকরা সেই জটিলতা ডিঙিয়ে ওই সেবা নিতে ততটা আগ্রহী নয়। এমন বাস্তবতায় নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির নির্দেশনা অনুসারে মোবাইল ফোন অপারেটর রবি, বাংলালিংক ও টেলিটক আনুষ্ঠানিকভাবে সহজ পদ্ধতির ভয়েস মেইল সেবা চালু করেছে।

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় গতকাল সোমবার গণভবন থেকে বিটিআরসির কার্যালয়ে চেয়ারম্যানকে একটি ভয়েস মেইল পাঠিয়ে এ সেবার উদ্বোধন করেন। ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমও ভয়েস মেইল পাঠিয়ে এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের অভিনন্দন জানান।

জয় তাঁর ভয়েস মেইলে বলেন, ‘বিটিআরসির চেয়ারম্যান সাহেব, আমি সজীব ওয়াজেদ বলছি, আইসিটি অ্যাডভাইজার। বাংলাদেশে এই প্রথমবারের মতো ভয়েস মেইল সার্ভিস চালু করার জন্য আপনাকে এবং বিটিআরসিকে আমার কংগ্রাচুলেশন্স এবং কৃতজ্ঞতা। থ্যাংক ইউ এবং জয় বাংলা। ’

বিটিআরসির চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ এ বিষয়ে বলেন, ‘গত নভেম্বরে মোবাইল ফোন অপারেটরদের সেবা নিয়ে গণশুনানির সময় আমরা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম যে শিগগিরই স্বল্পমূল্যে ভয়েস মেইল চালুর ব্যবস্থা করা হবে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এই সেবা চালু রয়েছে।

কিছু অপারেটর এ সেবা চালু রাখলেও তা কমপ্লিকেটেড। এতে গ্রাহক উৎসাহী হয় না। কিন্তু এসংক্রান্ত ফিচারটি সহজ হলে এর ব্যবহার বাড়বে। কাউকে বারবার কল করে বিরক্ত না করে ভয়েস মেইল পাঠিয়ে দেওয়া যেতে পারে। প্রয়োজনীয় কথাটি রেকর্ড করে ব্যবহারকারীকে পাঠিয়ে দিতে হবে কাঙ্ক্ষিত ব্যক্তির মোবাইল ফোন নম্বরে। প্রথমে রবি এ সেবার বিষয়ে এগিয়ে এসেছে। পরে বাংলালিংক এবং টেলিটকও এসেছে। আশা করি, অন্যরাও এগিয়ে আসবে। ’

এক প্রশ্নের জবাবে বিটিআরসির চেয়ার্যমান বলেন, ‘এক মাস আগে মোবাইল ফোন অপারেটরদের কাছে একটি নির্দেশনা পাঠানো হয়েছিল। তাতে বলা ছিল, তিন মাসের মধ্যে এ সেবা চালু করতে হবে। এই অবস্থায় আগামী দুই মাসের মধ্যে অন্য অপারেটররাও এ সেবা চালু করবে বলে আশা করছি। ’

রবি আজিয়াটা লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাহতাব উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘বর্তমানে রবির ১২ লাখ গ্রাহক এ সেবা নিচ্ছে। বিটিআরসির নির্দেশনা অনুসারে এ সেবাকে আরো জনপ্রিয় করতে আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। ভয়েস মেইল সেবা পেতে এ মুহূর্তে ভয়েস কলের মতোই চার্জ নেওয়া হচ্ছে। পরে প্যাকেজ আকারে, যেমন ২০টি ভয়েস মেইলের জন্য ১০ টাকা বা ৫০টি ভয়েস মেইলের জন্য ২০ টাকা নেওয়া হতে পারে। সেবাটি আরো জনপ্রিয় করার পর ওই সব প্যাকেজ সুবিধা দেওয়া হবে। ’

বিটিআরসির সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এ সেবার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সংস্থাটির ভাইস চেয়ারম্যান আহসান হাবিব খান, বাংলালিংকের সিইও এরিক অসসহ বিটিআরসির কমিশনার ও অন্যান্য অপারেটরের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য