kalerkantho


কর্মশালায় বক্তারা

বিদ্যুৎ খাতে সাইবার হামলা ঠেকাতে সতর্ক থাকার পরামর্শ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



তথ্য-প্রযুক্তির এই যুগে দুষ্কৃতকারীরা যাতে সাইবার হামলা চালিয়ে জাতীয় সঞ্চালন ও উৎপাদন ব্যবস্থা অচল করে দিতে না পারে, সে বিষয়ে সতর্ক থাকতে সংশ্লিষ্টদের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। গতকাল রবিবার রাজধানীর বিদ্যুৎ ভবনে বিদ্যুতের উৎপাদন ও সঞ্চালন ব্যবস্থায় সাইবার হামলা প্রতিরোধ-সংক্রান্ত কর্মশালার আয়োজন করা হয়। এতে মার্কিন সংস্থা এমআইটি কানেকশন সায়েন্স সাইবার নিরাপত্তা নিশ্চিত রাখার কৌশল তুলে ধরে। কর্মশালায় প্রযুক্তির যথাযথ সংরক্ষণের পাশাপাশি দক্ষ নিয়ন্ত্রণব্যবস্থার ওপর জোর দেওয়া হয়।

কর্মশালায় প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানিবিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরী, জ্বালানি, বিদ্যুৎ ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু, এসডিজিবিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ, বিদ্যুৎসচিব ড. আহমেদ কায়কাউস, পিডিবি চেয়ারম্যান খালিদ মাহমুদ, পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসাইনসহ বিদ্যুৎ বিভাগ ও সংস্থার প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন।

কর্মশালায় সাইবার বিশেষজ্ঞরা বলেন, সাইবার অস্ত্রের ব্যবহার এখন আর সীমিত পরিসরে নেই। ইন্টারনেটের এ যুগে হ্যাকিং টুল ও স্পর্শকাতর অনেক তথ্যই দুষ্কৃতকারীদের হাতে চলে যাচ্ছে। যেকোনো সময় উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য আক্রমণ চালাতে পারে তারা।

বিদ্যুৎ বিভাগের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, দেশের বিদ্যুতের উৎপাদন ও বিতরণের পরিমাণ ব্যাপকভাবে বাড়ছে। এখন গ্রিড ও উৎপাদন পর্যায়—সব কিছু নিয়ন্ত্রণ করা হয় সফটওয়্যারের মাধ্যমে। এসব সফটওয়্যারে সাইবার আক্রমণ বিপর্যয় নেমে আসতে পারে।

তাই আগেভাগেই সতর্ক থাকতে পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসাইন কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘অন্য খাতে সাইবার নিরাপত্তার পাশাপাশি এখন বিদ্যুতের উৎপাদন ও সঞ্চালন ব্যবস্থার সাইবার নিরাপত্তা নিয়েও ভাবতে হচ্ছে। কেউ যাতে বিদ্যুতের উৎপাদন ও সঞ্চালন ব্যবস্থায় সাইবার আক্রমণ করতে না পারে, সে জন্য নিরাপত্তাব্যবস্থায় কী কী বিষয় সংযুক্ত করা যায়, কোথায় কোথায় আক্রমণ হতে পারে—তা চিহ্নিত করা এবং আক্রমণ হলে কিভাবে তা মোকাবিলা করা যাবে, তাই-ই আলোচনা হয়েছে। ’


মন্তব্য