kalerkantho


মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়া নিয়ে আপত্তি মুক্তিযোদ্ধা দলের

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা যাচাই-বাছাইয়ের যে উদ্যোগ নিয়েছে এর প্রক্রিয়া নিয়ে আপত্তি রয়েছে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের। গতকাল রবিবার সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে নেতারা এ বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

পুরানা পল্টনে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গতকাল আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমেদ খান। এ সময় কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক, বিএনপির মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক অবসরপ্রাপ্ত লে. কর্নেল জয়নাল আবেদীন, মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি ইশতিয়াত আজিজ উলফাত, কেন্দ্রীয় নেতা মিজানুর রহমান খান বীরপ্রতীক, এস এম মোস্তফা কামাল, মোস্তফা শাহাবুদ্দিন রেজা, এইচ আর সিদ্দিকী সাজু, এম এ শহীদ বাবুল, কুতুবউদ্দিন আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সাদেক আহমেদ খান বলেন, ‘সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা যাচাই-বাছাইয়ের নামে নোংরা খেলায় মেতে উঠেছে। এখন ভাতা পান দুই লাখ ৩২ হাজার জন মুক্তিযোদ্ধা। গত ৪৭ বছরে অর্ধেকের বেশি মুক্তিযোদ্ধা মারা গেছেন বার্ধক্যজনিত কারণে। সে ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা কমার কথা। নতুন যাচাই-বাছাইয়ে দেড় লাখের ওপরে অনলাইনে আবেদনপত্র জমা পড়েছে বলে সরকার জানিয়েছে। তাতে আশঙ্কা করছি অনেক ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা নতুন তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হবে। এর মাধ্যমে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের সন্মানহানি ঘটবে।

মুক্তিযোদ্ধাদের সঠিক তালিকা প্রণয়নে যাচাই-বাছাই কমিটিতে জীবিত সব সেক্টর কমান্ডার, সাব-সেক্টর কমান্ডার, যুদ্ধকালীন বিভিন্ন গ্রুপের কমান্ডারদের সম্পৃক্ত করার দাবি জানান নেতারা।


মন্তব্য