kalerkantho


চট্টগ্রামের বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতাল এক রকম বন্ধই

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি চিটাগাংয়ের (ইউএসটিসি) অধীনে পরিচালিত বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালে (বিবিএমএইচ) চিকিত্সাসেবা একরকম বন্ধ হয়ে গেছে। গতকাল শনিবার বেসরকারি ওই হাসপাতালে একজন রোগীও ভর্তি করানো হয়নি। চিকিত্সকদের কক্ষ খোলা থাকলেও হাসপাতালে চিকিত্সাসেবা বন্ধ করে দিয়েছে নিবন্ধনের দাবিতে তিনটি ব্যাচের মেডিক্যাল শিক্ষার্থীরা।

এর আগে বন্ধ হয়ে যায় জরুরি বিভাগ ও আউটডোরের চিকিত্সাসেবা। ফলে ৩৫০ শয্যার এই হাসপাতাল অঘোষিতভাবে গতকাল থেকে বন্ধ রয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে ইউএসটিসির অচলাবস্থা নিয়ে বৈঠক হয়। তাতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বিএমডিসির রেজিস্ট্রেশন দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে এসংক্রান্ত চিঠি না আসায় গতকাল শনিবারও শিক্ষার্থীরা আন্দোলন থেকে সরেনি। দুপুরে তাদের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়, হাসপাতাল ও স্থানীয় বিএমএ নেতারা বৈঠক করেছেন। আন্দোলন থেকে সরে আসতে অনুরোধ করা হলেও তারা তা মানেনি।

ইউএসটিসি উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ডা. নুরুল আফসার গতকাল রাতে কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘গত বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রীর সভাপতিত্বে বৈঠক হয়।

তাতে সিদ্ধান্ত হয়েছে, আন্দোলনরত ২৫, ২৬ ও ২৭তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের বিএমডিসির নিবন্ধন দেওয়া হবে। এরপর দুই দিন ছুটি ছিল। আগামী দু-এক দিনের মধ্যে এই সম্পর্কিত চিঠি আমরা পেয়ে যাব বলে আশা করছি। আজ শিক্ষার্থীদের বলা হয়েছে আন্দোলন থেকে সরে আসার জন্য। কিন্তু তারা বলছে, লিখিত আদেশ লাগবে। ’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শিক্ষার্থীরা জানায়, লিখিত সিদ্ধান্ত না আসা পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। হাসপাতালসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রমও বন্ধ থাকবে।

উল্লেখ্য, গত ৯ জানুয়ারি ওই তিন ব্যাচের শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, উপ-উপাচার্যসহ বিভিন্ন দপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে দাবি আদায়ে স্মারকলিপি দেয়। পরদিন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ, চিকিত্সা অনুষদ, ইংরেজি ও বায়োকেমিস্ট্রি অনুষদের প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে আন্দোলন শুরু করে তারা।


মন্তব্য