kalerkantho


দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী পুনর্বাসন কেন্দ্রে

ছাত্রীকে ছুরিকাঘাত ছাত্রের

লালমনিরহাট প্রতিনিধি   

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী কিশোরী মিনা আক্তার (১৪) মারাত্মক জখম অবস্থায় এখন হাসপাতালে। আরেক দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী জাহাঙ্গীর আলম শাকিল (১৮) এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করেছে তাকে। প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় এ ঘটনা বলে অভিযোগ মিলেছে। গতকাল শনিবার দুপুরে লালমনিরহাটে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা আরডিআরএস পরিচালিত দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী পুনর্বাসন কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ শাকিলকে আটক করেছে। মিনার চিকিত্সা চলছে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে।

লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. আজমল হোসেন জানান, ছুরিকাঘাতের শিকার মিনার গলায় ও বুকে গভীর ক্ষত হয়েছে। শরীরের আরো কয়েকটি স্থানে জখম রয়েছে। শারীরিক অবস্থার অবনতিতে তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

লালমনিরহাট সদর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, প্রেমে রাজি না হওয়ায় এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে আটক শাকিল। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

গতকাল বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলন করে আরডিআরএসের প্রগ্রাম ম্যানেজার এরশাদুল হক জানান, অপরাধীকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। আর আহত মেয়েটির চিকিত্সার ব্যয় বহন করবে সংস্থা।

লালমনিরহাট শহরের হাঁড়িভাঙ্গায় আরডিআরএসের ‘আইকেয়ার প্রজেক্টের’ অধীনে পরিচালিত হচ্ছে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী পুনর্বাসন কেন্দ্র। জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার সিন্দুর্ণা গ্রামের হোসেন আলীর ছেলে জাহাঙ্গীর আলম শাকিল এ কেন্দ্রের আবাসিক শিক্ষার্থী। কম দৃষ্টিসম্পন্ন শাকিল এখানে অবস্থান করছে ২০১০ সাল থেকে। সে লালমনিরহাট সরকারি কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী।

সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানান, ছুরিকাঘাতের শিকার ছাত্রী মিনা আক্তারের বাড়ি আদিতমারীর সরলখাঁ গ্রামে। বাবার নাম আফাজ উদ্দিন। পুনর্বাসন কেন্দ্রটিতে থেকে মিনা লেখাপড়া করছে পাশের দরগারপাড় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণিতে। কম দৃষ্টিসম্পন্ন এ ছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যক্ত করছিল শাকিল। তা পুনর্বাসন কেন্দ্রে জানাজানি হলে প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়। শাকিলকে এই অভিযোগে কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া হবে বলে আলোচনা চলছিল। এই অবস্থায় ক্ষুব্ধ শাকিল গতকাল পুনর্বাসন কেন্দ্রের ছাদে একলা পেয়ে ছুরিকাঘাত করে। চিত্কার শুনে অন্যরা তাকে উদ্ধার করে।

পুলিশ জানিয়েছে, জাহাঙ্গীর আলম শাকিল গত সপ্তাহে গ্রামের বাড়ি থেকে কেন্দ্রে ফিরেছে। এ সময় স্থানীয় বাজার থেকে সে ধারালো ছুরি কেনে। গতকাল বন্ধের দিন কেন্দ্রের আবাসিক শাখায় শিক্ষকরা ছিলেন না। দুপুরে মিনা কাপড় শুকাতে দিতে ছাদে গেলে শাকিল তাকে ছুরিকাঘাত করতে থাকে। অন্যরা ছুটে এসে শাকিলকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। মিনাকে নেওয়া হয় হাসপাতালে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শাকিল ঘটনার বর্ণনা দেওয়ার পাশাপাশি প্রেমের কারণে এ কাজ করেছে বলে দাবি করে।


মন্তব্য