kalerkantho


পোড়ামাটি সামগ্রীর প্রদর্শনী

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



পোড়ামাটি সামগ্রীর

প্রদর্শনী

পাহাড়পুরের বৌদ্ধ বিহার সংলগ্ন গ্রাম মিঠাপুর এবং জামালপুরের পালপাড়ার ২০ মৃিশল্পীর কর্ম নিয়ে শুরু হয়েছে সপ্তাহব্যাপী মৃিশল্পের প্রদর্শনী। জাতীয় জাদুঘরের নলিনীকান্ত ভট্টশালী গ্যালারিতে চলছে এ প্রদর্শনী।

এখানে কারুকাজে ভরা মাটির হাঁড়ি-পাতিল, মোমদানি, ফলক, খেলনা, নানা রকমের পুতুল, পাখি, হাতি, ঘোড়াসহ আরো অনেক মৃিশল্প স্থান পেয়েছে।

প্রায় সাড়ে তিন দশক ধরে বাংলাদেশ জাতীয় কারুশিল্প পরিষদ কারুশিল্পের উন্নয়ন, সংরক্ষণ, গবেষণা, প্রকল্প বাস্তবায়ন, কারুশিল্পীদের স্বীকৃতি প্রদান, বিষয়ভিত্তিক মেলা ও প্রদর্শনীর আয়োজন করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় এবার ইউনেসকোর সহায়তায় বাংলাদেশ জাতীয় কারুশিল্প পরিষদ পাহাড়পুরের ২৬ মৃিশল্পীকে নিয়ে একাধিক কর্মশালা করে। ৯ মাসের নির্ধারিত সময়ে পোড়ামাটির এসব সামগ্রী ও মাটির ফলক তৈরি করা হয়। কর্মশালায় অংশ নেওয়া শিল্পীদের মধ্য থেকে ২০ জনের বাছাই করা শিল্পকর্ম নিয়ে আয়োজন করা হয়েছে এ প্রদর্শনীর।

প্রদর্শনী চলবে ১৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। খোলা থাকবে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। তবে শুক্রবার বিকেল ৩টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। আর বৃহস্পতিবার থাকবে বন্ধ।

গতকাল শুক্রবার বিকেলে কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কর্মকমিশনের সচিব আকতারী মমতাজ, ইউনেসকো ঢাকা কার্যালয়ের প্রধান বেট্রিস খালদুন, বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের মহাপরিচালক মো. আলতাফ হোসেন, জাতীয় কারুশিল্প পরিষদের সভাপতি ও প্রকল্প সমন্বয়ক চন্দ্র শেখর সাহা প্রমুখ। পাহাড়পুরের ২০ মৃিশল্পীও উপস্থিত ছিলেন।

আমার ভাষার চলচ্চিত্র উৎসব শুরু : বাংলা চলচ্চিত্রকে সাধারণ দর্শকের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মিলনায়তনে শুরু হয়েছে পাঁচ দিনব্যাপী বাংলা চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর আসর ‘আমার ভাষার চলচ্চিত্র’। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদ আয়োজন করছে এই উৎসব। উৎসবের মিডিয়া পার্টনার হিসেবে আছে কালের কণ্ঠ।

গতকাল উৎসবের প্রথম দিনেই টিএসসি গেটের বাইরে উৎসবের টিকিট কাউন্টারে বেশ ভিড় ছিল। এরপর লাল-নীল রঙিন কাগজে সাজানো পুরো টিএসসি প্রাঙ্গণে প্রবেশ করতেই চোখে পড়ে চলচ্চিত্রজগতের পুরোধা ব্যক্তিদের বড় বড় ব্যানার। তাতে লেখা আছে চলচ্চিত্র অঙ্গনে তাঁদের অবদানের কথা। সিনেমার মূল প্রদর্শনী কক্ষে প্রবেশ করতেই চোখে পড়ে বিপুল দশর্কের উপস্থিতি।

উৎসবের দ্বিতীয় দিনে আজ শনিবার সকাল ১০টায় দেখানো হবে ঋত্বিক ঘটকের ‘সুবর্ণরেখা’, দুপুর দেড়টায় ঋতুপর্ণ ঘোষের ‘খেলা’, বিকেল ৪টায় মোরশেদুল ইসলামের ‘অনিল বাগচীর একদিন’ এবং সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় তৌকীর আহমেদের ‘অজ্ঞাতনামা’।


মন্তব্য