kalerkantho


হাইকোর্টে আট স্থায়ী বিচারপতি নিয়োগ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



হাইকোর্ট বিভাগে অতিরিক্ত বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পাওয়া আটজনকে স্থায়ী বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। শপথগ্রহণের দিন থেকে এ নিয়োগ কার্যকর হবে। একই সঙ্গে অতিরিক্ত বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পাওয়া একজনকে বাদ দেওয়া হয়েছে। আইন মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে এ কথা জানানো হয়।  

যাঁদের স্থায়ী বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে তাঁরা হলেন বিচারপতি এস এম মজিবুর রহমান, বিচারপতি আমির হোসেন, বিচারপতি খিজির আহমেদ চৌধুরী, বিচারপতি রাজিক আল জলিল,  বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তী, বিচারপতি মো. ইকবাল কবির, বিচারপতি মো. সেলিম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ারদী।

২০১৫ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি সরকার ওই আটজনসহ ১০ জনকে দুই বছরের জন্য হাইকোর্টের অতিরিক্ত বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দেয়। তাঁরা ওই বছরের ১২ ফেব্রুয়ারি শপথ নেন। তাঁদের মধ্যে বিচারপতি জে এন দেব চৌধুরী সম্প্রতি মারা যান। এই অবস্থায় অপর ৯ জনকে স্থায়ী বিচারপতি হিসেবে নিয়োগের জন্য রাষ্ট্রপতির কাছে সুপারিশ পাঠান প্রধান বিচারপতি। তাঁদের মধ্যে বিচারপতি ফরিদ আহমদ শিবলীকে বাদ দিয়ে বাকি আটজনকে স্থায়ী বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দেন রাষ্ট্রপতি।

এ বিষয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের জারি করা প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ‘সংবিধানের ৯৫ অনুচ্ছেদে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে রাষ্ট্রপতি প্রধান বিচারপতির সঙ্গে পরামর্শক্রমে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের আটজন অতিরিক্ত বিচারককে হাইকোর্ট বিভাগের বিচারক হিসেবে নিয়োগদান করেছেন।

এদিকে একজন বাদ পড়ার খবরে আদালতপাড়ায় ব্যাপক আলোচনা চলছে। এ ক্ষেত্রে সুপ্রিম কোর্টের রায় লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠেছে। আইনজীবীরা জানান, এর আগে আওয়ামী লীগ আমলে নিয়োগ পাওয়া ১০ জন অতিরিক্ত বিচারপতিকে ২০০৩ সালে বিএনপি সরকার স্থায়ী নিয়োগ না দেওয়ায় তাঁরা বাদ পড়েন। পরে বাদ পড়া ১০ জনকে স্থায়ী নিয়োগের দাবিতে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন আইনজীবী ইদ্রিসুর রহমান। ওই রিটের চূড়ান্ত রায়ে প্রধান বিচারপতির পরামর্শের ভিত্তিতে বিচারপতি নিয়োগের ওপর জোর দেওয়া হয়।


মন্তব্য