kalerkantho


কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম বললেন

কাজ মূল্যায়নের আগেই মন্তব্যে কষ্ট পাব

মোশতাক আহমেদ   

৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



কাজ মূল্যায়নের আগেই মন্তব্যে কষ্ট পাব

নির্বাচন কমিশনে নিয়োগ পাওয়া নতুন কমিশনারদের একজন সাবেক সচিব মো. রফিকুল ইসলাম। গতকাল মঙ্গলবার কালের কণ্ঠকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, কাজের মূল্যায়নের আগেই তাঁকে নিয়ে কোনো ধরনের মন্তব্য করা হলে তিনি কষ্ট পাবেন। এ প্রসঙ্গে তিনি জানান, কোনো রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে তাঁর নাম দেওয়া হয়নি।

সরকারি চাকরি থেকে অবসর নেওয়ার পর বেসরকারি প্রতিষ্ঠান আরএমএম গ্রুপের উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করছেন রফিকুল ইসলাম। বাংলামোটরে এই গ্রুপের নিজ অফিসে বসেই কালের কণ্ঠ’র সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমার কাজের মূল্যায়নের আগেই কোনো রাজনৈতিক দল আমাকে নিয়ে নেতিবাচক কথা বললে কষ্ট পাব। ’

নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে ২০০৭ সালের ৫ মার্চ থেকে ২০১১ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত ভোটার তালিকা হালনাগাদ প্রকল্পসহ বিভিন্ন প্রকল্পের দায়িত্বে ছিলেন রফিকুল ইসলাম। পরে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এবং সর্বশেষ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ে সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

সচিব হিসেবে ২০১৪ সালে রফিকুল ইসলাম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় থেকে অবসরে যান।  

ব্যক্তিগতভাবে  কোনো রাজনৈতিক দলের সমর্থক নন উল্লেখ করে রফিকুল ইসলাম জানান, চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ার সময়ে তাঁর বাবা মারা যান। মায়ের একান্ত ইচ্ছায় বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে সরকারের প্রশাসন ক্যাডারে যোগ দেন।

তিনি মানিকগঞ্জের ঘিওরে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ছিলেন। প্রাথমিক শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পোস্ট-লিটারেসি ক্যাম্পেইন প্রকল্পের পরিচালক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

মো. রফিকুল ইসলামের বাড়ি রাজশাহীর গোদাগাড়ী সদরে। স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে তাঁর। স্ত্রী নাজমুন আরা বেগম রাজধানীর ইডেন মহিলা কলেজের শিক্ষক ছিলেন। ২০১০ সাল থেকে অবসরে আছেন নাজমুন আরা।


মন্তব্য