kalerkantho


দুদকের প্রশংসা করল এডিবি ও গিজ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কার্যক্রমে অগ্রগতির প্রশংসা করেছে দুটি আন্তর্জাতিক সংস্থা। গতকাল বুধবার দুদকের প্রধান কার্যালয়ে চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদের সঙ্গে পৃথক সাক্ষাৎকারে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) ও জার্মান আন্তর্জাতিক সহায়তা সংস্থার (গিজ) প্রতিনিধরা এই প্রশংসা করেন।

সাক্ষাৎকারে অংশ নেয় এডিবির ভাইস প্রেসিডেন্ট (অপারেশন) ওয়ানচাই ঝ্যাংয়ের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল ও গিজের ‘রুল অব ল’ কর্মসূচির প্রধান প্রমিতা সেনগুপ্তার নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের দল।

এডিবি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, দুর্নীতি দমন ও প্রতিরোধ একটি জটিল বিষয়। বাংলাদেশের আর্থসামাজিক বাস্তবতায় দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণ করা খুবই জরুরি। কারণ, কেবল দুর্নীতিই দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের অগ্রগতির প্রধান প্রতিবন্ধক। কমিশনের কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণের ওপর গুরুত্বারোপ করে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, দুদক কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণের প্রয়োজন, বিশেষ করে সাইবার ক্রাইমের ওপর প্রশিক্ষণ প্রয়োজন। এ ছাড়া সরকারি কর্মকর্তাদের স্থানীয়ভাবে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিতকল্পে দেশব্যাপী গণশুনানি অনুষ্ঠিত হচ্ছে বলে এডিবির প্রতিনিধিদের তিনি অবহিত করেন।

দুদকের বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কে জেনে এডিবির ভাইস প্রেসিডেন্ট ওয়ানচাই ঝ্যাং সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, এডিবি মূলত বিভিন্ন দেশের সেক্টর ও প্রকল্প স্তরে কাজ করে থাকে। তবে কমিশনের তথ্য-প্রযুক্তি কিংবা মনিটরিং-সংক্রান্ত কাজের ক্ষেত্রে তাঁরা সহযোগিতা করবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। উল্লেখ্য, দুদকের জন্য এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের সহায়তায় আট লাখ ডলারের একটি কারিগরি সহায়তা প্রকল্প বাস্তবায়নের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

গিজের প্রতিনিধিদলের প্রধান প্রমিতা সেনগুপ্তা দুর্নীতি দমন কমিশনের চলমান কার্যক্রমের প্রশংসা করে বলেন, ২০১৬ সালের দুর্নীতির ধারণা সূচকে বাংলাদেশের অবস্থার উন্নতি হওয়া কমিশনের ইতিবাচক কার্যক্রমের বহিঃপ্রকাশ।


মন্তব্য