kalerkantho


যুবদল নেতা খুন

খুলনায় ছাত্রলীগের দুই কর্মী আটক

খুলনা অফিস   

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



খুলনায় ঘের দখলের জন্য ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হামলার পর সংঘর্ষের সময় গুলিতে যুবদল নেতা নিহত হওয়ার ঘটনায় দুজনকে আটক করা হয়েছে। তারা ছাত্রলীগের কর্মী।

গতকাল সোমবার খুলনা নগরের মুসলমানপাড়া এলাকা থেকে আরিফ ও শামীম নামের এই দুজনকে আটক করা হয়। তবে যুবদল নেতাকে হত্যার ঘটনায় গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত থানায় মামলা হয়নি।

গত রবিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে বটিয়াঘাটা উপজেলার আমিরপুর ইউনিয়নের কোড়িয়া গ্রামের আতালের ঘের দখল করতে যায় ছাত্রলীগের একদল নেতাকর্মী। এলাকাবাসী বাধা দিলে সংঘর্ষ বেধে যায়। ওই সময় গুলিতে নিহত হন ইউনিয়ন যুবদলের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম (৪৩)।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বটিয়াঘাটা উপজেলার আমিরপুর ইউনিয়নের কোড়িয়া গ্রামের আতালের চরের মাছের ঘেরটি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্দ্ব চলছে। রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে এ ঘেরের দখলও পরিবর্তন হয়। এরশাদের শাসন আমলেও এ ঘের নিয়ে সংঘাতের ঘটনা ঘটেছে। এরই ধারাবাহিকতায় রবিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে খুলনা মহানগর থেকে ২০-২২টি মোটরসাইকেলে করে ছাত্রলীগের প্রায় ৫০ জন নেতাকর্মী ওই ঘের দখল করতে যায়।

এ হামলায় যুবদল নেতা নজরুল নিহত হন। এ ঘটনার প্রতিবাদে গতকাল এলাকায় বিক্ষোভ ও সমাবেশ হয়েছে।

বটিয়াঘাটা থানার ওসি (তদন্ত) এনামুল হক কালের কণ্ঠকে বলেন, নজরুলের লাশ ময়নাতদন্ত শেষে দাফন করা হয়েছে। মামলা না হলেও পুলিশ দুজনকে খুলনা নগরী থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে। মামলা হলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য