kalerkantho


মানবসেতুতে হাঁটা

উপজেলা চেয়ারম্যানসহ তিনজনকে দায়ী করে তদন্ত প্রতিবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



চাঁদপুরের একটি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের গড়া মানবসেতুতে হেঁটে বিতর্কের জন্ম দেওয়া সেই উপজেলা চেয়ারম্যানসহ তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে স্থানীয় সরকার বিভাগের গঠিত কমিটি। এক সদস্যবিশিষ্ট কমিটির প্রধান চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) গতকাল সোমবার বিভাগীয় কমিশনার রুহুল আমিনের কাছে তদন্ত প্রতিবেদন হস্তান্তর করেন।

তদন্ত প্রতিবেদন বিভাগীয় কমিশনারকে জমা দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কমিটির প্রধান সৈয়দা সারোয়ার জাহান। তিনি বলেন, পত্রপত্রিকায় যেভাবে ঘটনাটি প্রকাশ পেয়েছে, তদন্তেও তা উঠে এসেছে। প্রতিবেদনটি বিভাগীয় কমিশনারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তিনিই স্থানীয় সরকার বিভাগে পাঠিয়ে দেবেন। তদন্ত প্রতিবেদনে শাস্তির সুপারিশ করা হয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, কমিটি শাস্তির সুপারিশ নয়, ঘটনার সত্যতা বিষয়ে অনুসন্ধান করে প্রতিবেদন দিয়েছে।

গত ৩০ জানুয়ারি চাঁদপুরের হাইমচরের নীলকমল বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীদের কসরত প্রদর্শনের একপর্যায়ে ছাত্রদের পিঠের ওপর দিয়ে হেঁটে যান উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান নূর হোসেন পাটোয়ারী। এ দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে দেশব্যাপী তুমুল সমালোচনার ঝড় ওঠে। এরপর উপজেলা চেয়ারম্যান ও বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন শিক্ষার্থীদের অভিভাবক। আর স্থানীয় সরকার বিভাগ ঘটনার বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য এক সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করে।

এরপর তদন্ত কমিটির প্রধান সৈয়দা সারোয়ার জাহান চাঁদপুরে গিয়ে তদন্ত শুরু করার পর অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতা নূর হোসেন তাঁর কাছে না গেলেও একটি চিঠি পাঠান, যাতে ছাত্রের পিঠে চড়ায় ‘ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চাওয়া হয়’। ওই চিঠিতে তিনি এটি তাঁর ভুল বলে দাবি করেন। এ ছাড়া বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হুমায়ন কবির পাটোয়ারী ও প্রধান শিক্ষক মোশাররফ হোসেনের উপস্থিতিতে এবং তাঁদের আয়োজনেই এমন ঘটনা ঘটায় তাঁদেরও দায়ী করা হয়েছে।


মন্তব্য