kalerkantho


মণিরামপুরে আ. লীগে হাঙ্গামা, আহত ১০

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি   

৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



যশোরের মণিরামপুরের কাঁঠালতলা বাজারে শুক্রবার রাতে সরকারি জমিতে নির্মাণ করা দোকানঘর দখল নিয়ে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। তাঁদের মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তাঁরা হলেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা রেজাউল ইসলাম, মকলেছুর রহমান, মাস্টার নুরুজ্জামান, যুবলীগের কর্মী নুরুজ্জামান, আওয়ামী লীগের কর্মী কওছার আলী, মামুন হোসেন, আনিছুর রহমান, ইশা সরদার, দোকান মালিক মনছুর আলী ও সেলুন মালিক মহাদেব সরকার।

স্থানীয় রোকজন জানায়, মশ্মিমনগর ইউনিয়নের পারখাজুরা বাজারে খাল ভরাট করে সরকারি জমিতে দুটি দোকানঘর তৈরি করেন মনছুর আলী সরদার। এর মধ্যে একটি ঘর আওয়ামী লীগ অফিস হিসেবে ব্যবহার করে আসছিলেন সংগঠনটির স্থানীয় নেতারা। সম্প্রতি মহাদেব সরকার ওই ঘরে সেলুনের কাজ করতে থাকেন। এ নিয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা আবুল হোসেন এবং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মনছুর আলীর কথাকাটাকাটি হয়। একপৎসয়ে উভয় পক্ষের সমর্থকরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে কমপক্ষে ১০ জন আহত হন। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম বলেন, ঘটনার দিন সকালে ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেন এবং তাঁর সাঙ্গোপাঙ্গরা দোকান মালিক মনছুর ও সেলুন মালিক মহাদেব সরকারকে মারধর করলে এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। স্থানীয় মশ্মিনগর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেন বলেন, ‘সরকারি জমিতে দোকানঘর নির্মাণের বিষয়ে জানতে চাইলে আমাদের ওপর হামলা করা হয়।

মণিরামপুর থানার ওসি বিপ্লব কুমার নাথ জানান, লিখিত অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য