kalerkantho


কলকাতা বইমেলা

বাংলাদেশ দিবস আজ কবিতার জন্য উৎসর্গ

নিজস্ব প্রতিবেদক, কলকাতা   

৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



কলকাতার ৪১তম আন্তর্জাতিক পুস্তক মেলায় আজ রবিবার ‘বাংলাদেশ দিবস’। দিনটি বাংলাদেশের কবিতার জন্য উৎসর্গ করা হয়েছে।

এ উপলক্ষে মেলা প্রাঙ্গণে বেশ কিছু অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। আজ ইউবিআই অডিটরিয়ামে দিবসের উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশের সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন নারী ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব কবি ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, কবি আসাদ চৌধুরী প্রমুখ।

মেলায় রয়েছে বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী দিনাজপুরের কান্তজি মন্দিরের আদলে পৌনে এক হাজার বর্গফুটের বাংলাদেশ প্যাভিলিয়ন। এতে বাংলা একাডেমি, ইসলামিক ফাউন্ডেশন ছাড়াও ৩১টি প্রকাশনীর স্টল রয়েছে।

গত ২৫ জানুয়ারি কোস্টারিকার প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক রোকসানা পিন্টু রপেজ, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং কবি নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী ৪১ বার ঘণ্টা বাজিয়ে বই উৎসবের সূচনা করেছিলেন। আজ মেলার শেষ দিন। শেষ দিনে আরো বেশি পাঠকের উপস্থিতি আশা করছে আয়োজক বুক সেলার্স অ্যান্ড পাবলিশার্স গিল্ড।

গত বছর ১০ দিনে কলকাতা বইমেলায় ২৫ লাখ পাঠকের সমাগম ঘটেছিল।

এবার সেই সংখ্যাটা আরো বাড়বে বলে মনে করছেন কলকাতা পুস্তক মেলার আয়োজক গিল্ডের সম্পাদক ত্রিদিব চট্টোপাধ্যায়।

কলকাতার উপহাইকমিশনের হেড অব চ্যান্সারি মিয়া মুহম্মদ মাইনুল কবীর বলেন, ‘এবারের বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে ভিড় ছিল আগের যেকোনো বছরের চেয়ে অনেক বেশি। কলকাতার পাঠকদের ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া পেয়ে আমরা খুশি। আসলে বাংলাদেশের ঐতিহ্য তুলে ধরার প্রয়াসের অংশ হিসেবেই কলকাতা বইমেলায় বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী স্থাপত্যগুলোকে রেপ্লিকা হিসেবে তুলে আনা হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্ধমান হাউস কিংবা কার্জন হলের মতোই স্থাপত্যও আমরা ইতিমধ্যেই বইমেলায় তুলে এনেছিলাম। আশা করি এবারও মেলায় সেরা প্যাভিলিয়নের স্বীকৃতি বাংলাদেশের ঘরেই যাবে। ’


মন্তব্য