kalerkantho


গ্রেপ্তারের নির্দেশ আইনমন্ত্রীর

কলেজের কমন রুমে ঢুকে ছাত্রীকে থাপ্পড় বখাটের

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় শহীদ স্মৃতি ডিগ্রি কলেজের কমনরুমে ঢুকে এক ছাত্রীকে এলোপাতাড়ি থাপ্পড় মেরেছে এক বখাটে। একই সঙ্গে এসিড ছুড়ে মুখ ঝলসে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। ওই বখাটের নাম প্রিয়তম ঘোষ ওরফে প্রীতম (২৬)। গতকাল শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনা জেনে বখাটেকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। তবে গতকাল সন্ধ্যায় এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ওই বখাটেকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

এদিকে দুপুরে পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। বিকেলে অভিযোগটি মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করেছে থানার পুলিশ। মন্ত্রীর নির্দেশ পেয়ে আখাউড়া থানার ওসি ওই ছাত্রী ও তাঁর অভিভাবকের সঙ্গে কথা বলেন। পরে পুলিশের একাধিক টিম তাকে গ্রেপ্তারে মাঠে নামে। বখাটে প্রীতমের বাড়ি আখাউড়া পৌর এলাকার ঘোষপাড়ায়।

হামলার শিকার ওই ছাত্রী জানান, বখাটে প্রীতম ওই ছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এতে সাড়া না দেওয়ায় প্রায়ই সে উত্ত্যক্ত করত। এর মধ্যে গতকাল দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ওই বখাটে দৌড়ে এসে কমনরুমে ঢুকে এলোপাতাড়ি চড়-থাপ্পড় মারতে থাকে। একই সঙ্গে এসিড মেরে মুখ ঝলসে দেওয়ার হুমকি দেয় সে। এ সময় কমনরুমে থাকা অন্য ছাত্রীরা ভয়ে ছোটাছুটি করতে থাকে।

ওই ছাত্রীর বাবা অভিযোগ করে বলেন, ‘দুই বছর ধরে আমার মেয়েকে উত্ত্যক্ত করে আসছে বখাটে প্রীতম। বিষয়টি তার পরিবারকে একাধিকবার জানানো হয়েছে। তাতে কোনো কাজ হয়নি। এরপর বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ গণমান্যদের জানানো হয়। ’

ছাত্রীর মা অভিযোগ করে আরো বলেন, ‘মেয়ের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে আগে থেকেই উত্ত্যক্ত করার বিষয়টি খুব বেশি লোকজনকে জানানো হয়নি। প্রীতমের পরিবারের লোকজনের কাছে অভিযোগ দিলে তারা উল্টাপাল্টা কথা বলত। উপায়হীন হয়ে আমি প্রায়ই মেয়ের সঙ্গে কলেজে যাওয়া-আসা করি। ’

শহীদ স্মৃতি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মো. জয়নাল আবেদীন বলেন, ‘দুপুরের দিকে কলেজে খুব বেশি শিক্ষার্থী ছিল না। বখাটে প্রীতম ত্বরিত ঘটনা ঘটিয়ে কলেজের উত্তর দিকের সীমানা দেয়াল টপকে পালিয়ে যায়। পরে ছাত্রীর মা এসে আমাকে ঘটনা জানান। ’

আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে মো. মোশারফ হোসেন তরফদার বলেন, ‘মন্ত্রী মহোদয়ের কাছ থেকে ফোন পেয়ে আমি ঘটনা জানতে পারি। পরে তাত্ক্ষণাৎ ঘটনাস্থলে যাই। বখাটে প্রীতমকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। ছাত্রীর বাবার অভিযোগটি বিকেলে মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করা হয়েছে। ’


মন্তব্য