kalerkantho


নানা আয়োজনে বিশ্ব ক্যান্সার দিবস পালিত

ক্যান্সারের চিকিৎসা ব্যয় ও হয়রানি কমানোর তাগিদ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ক্যান্সারের চিকিৎসা ব্যয় ও হয়রানি কমানোর তাগিদ

দেশে ক্যান্সার রোগের চিকিৎসা ব্যয়, ওষুধের দাম, রোগীর হয়রানি ও বিভ্রান্তি কমিয়ে আনা জরুরি হয়ে পড়েছে। সেই সঙ্গে দেশব্যাপী আরো সহজ করতে হবে ক্যান্সার চিকিৎসা। দক্ষ জনবল তৈরি এবং নিয়োগে সরকারের তরফ থেকে আরো কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। গতকাল শনিবার রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে বিশ্ব ক্যান্সার দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক গোলটেবিল বৈঠকে দেশের বিশিষ্টজনরা এমন তাগিদ দিয়েছেন।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেন, ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ফলে রোগের ভীতির চেয়েও এখন বড় ভীতি হচ্ছে এর চিকিৎসা খরচ। চিকিৎসা এতটাই ব্যয়বহুল যে তা জোগাতে গিয়ে আক্রান্ত রোগীর পরিবার রীতিমতো নিঃস্ব হয়ে পড়ে। পুরো পরিবারটিকেই পথে বসতে হয়। সরকার এখন দরিদ্র মানুষের চিকিৎসায় নানা উদ্যোগ নিচ্ছে।

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা আবদুল মুয়ীদ চৌধুরী বলেন, ‘রোগে আক্রান্ত হওয়ার পর বিপদ থেকে রক্ষার চেয়ে আগে থেকেই আমাদের সচেতন হতে হবে যাতে ক্যান্সার না হয়। বিশেষ করে সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগ এ ক্ষেত্রে বাড়াতে হবে। যেসব খাদ্য বা কারণে ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ে সেগুলো থেকে দূরে থাকতে হবে।

তামাকজাতীয় পণ্য বর্জন করতে হবে। পাশাপাশি ক্যান্সার চিকিৎসায় দেশে এখনো যেসব যন্ত্রপাতি, জনবল ও অন্যান্য ব্যবস্থাপনায় ঘাটতি রয়েছে সেগুলো কাটিয়ে উঠতে হবে। ’

সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার এ টি এম শামসুল হুদা বলেন, ওষুধের দাম কমানো যেমন জরুরি তেমনি চিকিৎসার অন্যান্য ব্যয়ও কমানো জরুরি। সেই সঙ্গে ক্যান্সার রোগে আক্রান্তদের জন্য প্যালিয়েটিভ কেয়ার ব্যবস্থাপনা আরো জোরদার করতে হবে।

সংসদ সদস্য ও ক্যান্সারে আক্রান্ত কবি কাজী রোজী বলেন, ‘১৯৯৪ সাল থেকে আমি ক্যান্সারের সঙ্গে বসবাস শুরু করি। আমি সব চিকিৎসাই করেছি দেশের ভেতরে। এখনো চিকিৎসা চলছে। আমি লড়ে যাচ্ছি সাহসের সঙ্গে। কিন্তু ক্যান্সার চিকিৎসায় ডাক্তারদের আরো সচেতন হতে হবে। ’

বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক মহাসচিব ও স্বাচিপের সভাপতি অধ্যাপক ডা. ইকবাল আর্সলান বলেন, ‘দেশের ওষুধ কম্পানিগুলো রীতিমতো বেনিয়া হয়ে উঠেছে; ওষুধ উত্পাদনে প্রকৃত খরচের তুলনায় বহুগুণ বেশি দাম আদায় করছে। ৫০ পয়সার ওষুধ নিচ্ছে চার টাকা। একইভাবে প্রাইভেট হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে যে পরীক্ষা-নিরীক্ষায় সর্বোচ্চ ১৫-২০ টাকা ফি নেওয়া উচিত সেখানে অনেক মুনাফার আশায় আদায় করা হচ্ছে ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা। আমাদের ডাক্তাররাও অনেকে দায়িত্ববান ভূমিকা পালন করেন না। রোগীর সঙ্গে ভালো আচরণ করেন না। ’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মেহতাব খানম বলেন, ক্যান্সার রোগীদের চিকিৎসার পাশাপাশি মানসিক সেবা খুবই জরুরি। রোগী যতটা মানসিকভাবে চাঙ্গা থাকবে ততই ভালো হবে।

ইউনাইটেড হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রহমান খান বলেন, অন্য রোগের চিকিৎসা আর ক্যান্সারের চিকিৎসার মধ্যে পার্থক্য আছে। ক্যান্সার চিকিৎসা করতে হয় শতভাগ আন্তর্জাতিক প্রটোকল মেনে, এ ক্ষেত্রে কোনো বিকল্প নেই।

বিএসএমএমইউ : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়েও বিশ্ব ক্যান্সার দিবস উপলক্ষে গতকাল সকালে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

একই বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান এতে প্রধান অতিথি ছিলেন। এ সময় আরো আলোচনা করেন উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. এ এস এম জাকারিয়া স্বপন, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আলী আসগর মোড়ল, হেমাটোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মাসুদা বেগম প্রমুখ।

ক্যান্সার সোসাইটি : এ ছাড়া গতকাল বিশ্ব ক্যান্সার দিবসে বাংলাদেশ ক্যান্সার সোসাইটি, ইউনাইটেড ফোরাম অ্যাগেইন্স্ট টোব্যাকো ও প্রফেসর (ডা.) ওবায়েদুল্লাহ-ফেরদৌসী ফাউন্ডেশন ক্যান্সার হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের যৌথ উদ্যোগে একটি গণর‌্যালি ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ক্যান্সার সোসাইটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোল্লা ওবায়েদুল্লাহ বাকী বলেন, ধূমপানের কারণে মুখের ক্যান্সার, গলনালি ও শ্বাসনালির ক্যান্সার, ফুসফুসের ক্যান্সারসহ বিভিন্ন অঙ্গের ক্যান্সার হয়, তাই ধূমপানসহ সব ধরনের তামাক বর্জন করতে হবে।

অ্যাপোলো হাসপাতাল : এদিকে একই দিবস উপলক্ষে গতকাল অ্যাপোলো হাসপাতালের উদ্যোগেও র‌্যালি, আলোচনাসভাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়। হাসপাতালের সিইও ডা. রত্নদ্বীপ চাসকার, পরিচালক (বিজনেস) এনায়েত উল্লাহ খান, পরিচালক (হাসপাতাল) ডা. প্রসাদ আর মুগলিকার, সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার ডা. আরিফ মাহমুদসহ বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

বিকন ফার্মাসিউটিক্যালস : দেশে ক্যান্সারের ওষুধ তৈরির প্রথম প্রতিষ্ঠান হিসেবে প্রতিবারের মতো এবারও বিকন ফার্মাসিউটিক্যালসের উদ্যোগে ১০টি এলাকায় বিভিন্ন রকম জনসচেতনতামূলক কর্মসূচি পালন করা হয়।


মন্তব্য