kalerkantho


প্রকাশিত সংবাদের ব্যাখ্যা দিয়েছে ইসলামী ব্যাংক

৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



সম্প্রতি কয়েকটি পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনের ব্যাখ্যা দিয়েছে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড। তাতে বলা হয়েছে, ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সভার সব নোটিশ দেশের প্রচলিত আইন, নিয়ন্ত্রক সংস্থার বিধিবিধান ও ব্যাংকের সংঘবিধি অনুযায়ী দেশি-বিদেশি নির্বিশেষে সব পরিচালকের কাছে নিয়মিত ও যথাসময়ে পাঠানো হয়ে থাকে।

নোটিশ দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সভার নথিপত্র/স্মারকগুলো পরিচালকদের ইন্ট্রা-ওয়েবের মাধ্যমে পাঠানো হয় এবং পরবর্তী সময়ে যথানিয়মে হার্ডকপিও পাঠানো হয়। এর ভিত্তিতে পরিচালকরা ব্যাংকের নীতি প্রণয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে ব্যাংক ব্যবস্থাপনায় সুচিন্তিত ও মূল্যবান মতামত, পর্যবেক্ষণ ও পরামর্শ প্রদান করে থাকেন।

নতুন ব্যবস্থাপনা পরিচালক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় কোনো ধরনের নিয়মের ব্যত্যয় ঘটেনি বলেও জানিয়েছে ইসলামী ব্যাংক। গতকাল শুক্রবার পাঠানো ব্যাংকটির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পদ শূন্য হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সর্বসম্মতিক্রমে, প্রচলিত আইন ও বিধিবিধান সম্পূর্ণরূপে অনুসরণ করে এবং নিয়ন্ত্রক সংস্থার যথাযথ অনুমোদনক্রমে দেশের ব্যাংকিং জগতের একজন সুদক্ষ, বিজ্ঞ ও দীর্ঘ অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ব্যক্তিত্বকে ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে নিয়োগদান করা হয়েছে, যিনি এর আগে কয়েকটি ব্যাংকে সুনামের সঙ্গে ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।

এই প্রেক্ষাপটে ইসলামী ব্যাংক কর্তৃপক্ষ সংশ্লিষ্ট সব স্টেকহোল্ডারকে আশ্বস্ত করছে যে সাম্প্রতিক পরিবর্তনে প্রচলিত আইন-কানুন, নিয়ন্ত্রক সংস্থার ইস্যু করা বিধিবিধান ও সার্কুলার যথাযথভাবে পরিপালিত হয়েছে এবং ভবিষ্যতেও যথাযথভাবে অনুসরণ করা হবে।

ব্যাংকটির অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট শেখ সাইদুল হাসান স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিটিতে আরো বলা হয়, ইসলামী ব্যাংক তার জন্মলগ্ন থেকে সব ধরনের ব্যাংকিং কার্যক্রমের মাধ্যমে সর্বস্তরের জনগণ তথা দেশের সার্বিক অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে আসছে। এই অগ্রযাত্রায় সংশ্লিষ্ট সবার আরো সহযোগিতা ও সমর্থন কামনা করেছে ব্যাংকটি।


মন্তব্য