kalerkantho


হাবের প্যাকেজ ঘোষণা

বেসরকারিভাবে হজের সর্বনিম্ন খরচ ৩ লাখ ১৯ হাজার টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



চলতি বছর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজে যাওয়ার সর্বনিম্ন খরচ (কোরবানি ছাড়া) নির্ধারণ করা হয়েছে তিন লাখ ১৯ হাজার ৩৫০ টাকা। গত বছরের চেয়ে খরচ বাড়ানো হয়েছে ১৪ হাজার ৪৫২ টাকা। গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর নয়াপল্টনের একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে বেসরকারি এজেন্সিগুলোর পক্ষ থেকে এই প্যাকেজ ঘোষণা করেন হজ এজেনসিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) সভাপতি ইব্রাহিম বাহার।

সংবাদ সম্মেলনে হাবের মহাসচিব শেখ আবদুল্লাহ অভিযোগ করে বলেন, হজযাত্রীদের প্রাক-নিবন্ধনের ক্ষেত্রে সরকারি-বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় সমতা তৈরি হয়নি। তিনি বলেন, ৯৮ শতাংশ হাজি পাঠাই আমরা বেসরকারিভাবে। অথচ বেসরকারি হজযাত্রীদের প্রাক-নিবন্ধন এখনো শুরু হয়নি। ’ প্রসঙ্গত, বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজের প্রাক-নিবন্ধন শুরু হবে ১৯ ফেব্রুয়ারি।

লিখিত বক্তব্যে হাব সভাপতি বলেন, এ বছর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজের সর্বনিম্ন খরচ জনপ্রতি তিন লাখ ১৯ হাজার ৩৫০ টাকা ধরা হয়েছে। এ ছাড়া প্রত্যেককে কোরবানির খরচ বাবদ ৫০০ সৌদি রিয়াল (১০ হাজার ৭৫০ টাকা) এবং ব্যক্তিগত অন্যান্য খরচের জন্য ৫০০ মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ সৌদি রিয়াল সঙ্গে নেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এবার সর্বনিম্ন এক লাখ ৫৬ হাজার ৫৩৭ টাকা মৌলিক খরচ নির্ধারণ করে দেয় সরকার। এর সঙ্গে সৌদি আরবে বাড়িভাড়া, খাওয়া-দাওয়াসহ অন্যান্য খরচ যোগ করে ন্যূনতম এই ব্যয় ধরা হয়েছে।

সরকারি ব্যবস্থাপনায় প্যাকেজ-১-এর আওতায় হজে যেতে এবার তিন লাখ ৮১ হাজার ৫০৮ টাকা এবং প্যাকেজ-২-এর আওতায় তিন লাখ ১৯ হাজার ৩৫৫ টাকা খরচ হবে।

হাব ঘোষিত সর্বনিম্ন খরচের বাইরে বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার আওতায় একাধিক প্যাকেজ ঘোষণা করবে বেসরকারি এজেন্সিগুলো।

সৌদি আরবের সঙ্গে এ বছরের হজ চুক্তি অনুযায়ী সরকারি ব্যবস্থাপনায় ১০ হাজার ও বেসরাকরি ব্যবস্থাপনায় এক লাখ ১৭ হাজার ১৯৮ জন বাংলাদেশি হজে যাওয়ার সুযোগ পাবেন। চাঁদ দেখাসাপেক্ষে এবারের হজ আগামী ১ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হতে পারে।

সংবাদ সম্মেলনে ছিলেন হাব সহসভাপতি ফরিদ আহমেদ মজুমদার, অর্থ-সম্পাদক ফজলুল হক মামুন, মোজাম্মেল হোসেন কামাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য