kalerkantho


‘ভালোবাসার গল্প প্রতিযোগিতা’

বনানীতে ক্যাম্পেইনে ব্যাপক সাড়া

মো. জহিরুল ইসলাম   

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



বনানীতে ক্যাম্পেইনে

ব্যাপক সাড়া

কালের কণ্ঠ ও ক্যাপিটাল রেডিও আয়োজিত ‘ভালোবাসার গল্প প্রতিযোগিতা’র ক্যাম্পেইনে গতকাল রাজধানীর বনানীতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে কালের কণ্ঠ ও ক্যাপিটাল রেডিও যৌথভাবে আয়োজন করেছে ‘ভালোবাসার গল্প’ লেখা প্রতিযোগিতা। ওয়ালটনের সৌজন্যে আয়োজিত প্রতিযোগিতার ক্যাম্পেইন শুরু হয়েছে বুধবার। গতকাল বৃহস্পতিবার ক্যাম্পেইনের দ্বিতীয় দিনে বনানী এলাকার চারটি প্রাইভেট ইউনিভার্সিটিতে মিলেছে শিক্ষার্থীদের ব্যাপক সাড়া। শিক্ষার্থীরা তাদের মনের কথা প্রাণখুলে বলেছে, শিক্ষকরাও গল্প লিখতে দিয়েছেন উৎসাহ।

গতকাল সকাল ১০টার দিকে নর্দান ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসে কথা হয় শিক্ষার্থী ইবনূরবীন হোসাইন সাকিবের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘ভালোবাসা এক জায়গায় সীমাবদ্ধ না, এটি সৃষ্টিকর্তার দান। জন্মের পর থেকে আমরা বিভিন্নভাবে ভালোবাসা পেতে থাকি। ’

প্রাইমএশিয়া ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী জাহিদ হাসান বলেন, ‘আমার ভালোবাসার পুরোটা জুড়ে রয়েছে মা ও ছোট বোন। ’ এ সময় শিক্ষার্থী জেরিন শোনালেন তাঁর কপালে সব সময় লেগে থাকা টিপের গল্প। শিক্ষার্থীদের নিজের জীবনে গল্প বলতে ও লিখতে উৎসাহ দিচ্ছিলেন এই বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার আবুল কাশেম মোল্লা। তিনি বলেন, ‘ভালোবাসার অর্থ ব্যাপক, এর ব্যাপ্তি অনেক, যা ভালো তা-ই ভালোবাসার অংশ। ’

বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার এ কে এম আশরাফুল হক কালের কণ্ঠ ও এফএম ৯৪.৮ ক্যাম্পেইন টিমকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, ভালোবাসাকে বিশ্বময় ছড়িয়ে দিতে হবে, মানুষ হিসেবে মানুষকে ভালোবাসতে হবে। তবেই এ আয়োজনের সার্থকতা মিলবে। ’

ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে কথা হয় শিক্ষার্থী ফয়সালের সঙ্গে। তিনি বলেন, গল্প পাঠাতে সমস্যা নেই; কিন্তু আব্বু তো কালের কণ্ঠ পড়ে, যদি দেখে তবে কী হবে! মাইর খাব। তবে নির্ভয়ে এ কথা বলতে পারি, একবার ভালোবাসার কথা বলে দ্বিতীয়বার বলার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলাই ভালোবাসা। ’

ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগের অধ্যাপক কাজী মাহবুবুল হক সুপন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, ‘দেশপ্রেম কী, তা তোমাদের জানতে হবে। দেশপ্রেম হলো যে যার জায়গায় থেকে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করা। তোমাদের কাজ পড়াশোনা করা, আমাদের কাজ পড়ানো। লেখার অভ্যাস উঠে যাচ্ছে! শিক্ষার্থীরা এখন আর লিখতে চায় না, যা খুবই উদ্বেগের বিষয়। তোমরা কলম ধরলেই লেখা আসবে, তাই কলম ধরতে শেখো, আর লেখো নিজের ভালোবাসা নিয়ে, লিখতে থাকো দেশ নিয়ে।

গতকাল সকাল থেকে রাজধানীর বনানীর চারটি প্রাইভেট ইউনিভার্সিটিতে গিয়ে শিক্ষার্থীদের ভালোবাসার গল্প শুনে, গল্প লেখা প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে উদ্বুদ্ধ করা হয় আয়োজকদের পক্ষ থেকে। ক্যাম্পেইন সহযোগী হিসেবে কাজ করেছেন কালের কণ্ঠ শুভসংঘের বন্ধুরা।

উল্লেখ্য, ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে ওয়ালটনের সৌজন্যে কালের কণ্ঠ ও ক্যাপিটাল এফএম ৯৪.৮ যৌথভাবে আয়োজন করেছে ‘ভালোবাসার গল্প প্রতিযোগিতা’। ১৮ থেকে ২৫ বছর বয়সের মধ্যে স্নাতক অথবা স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থীরা প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবে। এক হাজার শব্দে ৭ ফেব্রুয়ারির মধ্যে ই-মেইল (valobasargolpo@kalerkantho.co) পাঠাতে হবে। এ ছাড়া কুরিয়ার বা ডাকযোগে গল্প পাঠানো যাবে কালের কণ্ঠ’র অফিসের ঠিকানায়।


মন্তব্য