kalerkantho


সরস্বতী পূজা উদ্‌যাপিত

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



সরস্বতী পূজা উদ্‌যাপিত

জ্ঞানের আলোয় সব অন্ধকার দূর করতে এবং নিজেকে জ্ঞানের আলোয় বিকশিত করতে ভক্তরা ছুটে গেছে দেবীর কাছে। ষোড়শ উপাচারে যজ্ঞের মাধ্যমে হয়েছে দেবীর আহ্বান।

ছিল মঙ্গল আরতি, পুষ্পাঞ্জলি। মায়ের আশীর্বাদ পেলেই তো বিদ্যা ও সংগীতের জগতে নিজের জ্ঞান লাভ। গতকাল বুধবার জ্ঞানলাভের জন্য আকুলতা জানিয়ে দেশজুড়ে উদ্‌যাপিত হয়েছে বিদ্যার দেবী সরস্বতীর পূজা। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম এ ধর্মীয় উৎসবে ছিল দেবীর কাছে অঞ্জলি প্রদান, প্রসাদ বিতরণ, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

বিদ্যার দেবীকে মনপ্রাণ ভরে পুষ্পাঞ্জলি দিয়েছেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা। ঢাকঢোল, কাঁসর ঘণ্টা আর নানা রঙের সাজে মুখর ছিল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো। সনাতন ধর্মাবলম্বীরা বিদ্যার দেবীর আরাধনায় ভিড় জমায় মণ্ডপে মণ্ডপে।

গত মঙ্গলবার মধ্যরাতে প্রতিমা স্থাপন করে পূজার আনুষ্ঠানিকতার সূচনা হয়েছিল। পূজা ঘিরে গতকাল রাত পর্যন্ত চলে নানা আয়োজন।

মহানগর সর্বজনীন পূজা কমিটি ঢাকেশ্বরী মন্দিরে কেন্দ্রীয়ভাবে এ পূজার আয়োজন করে। সকাল ৬টায় মন্দিরে প্রতিমা স্থাপন করা হয়, ৮টায় পূজা শুরু হয়। তারপর শুরু হয় অঞ্জলি প্রদান। পরে প্রসাদ বিতরণ করা হয়।

রামকৃষ্ণ মিশন ও মঠ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের মাঠে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে বিভিন্ন মণ্ডপ স্থাপন করা হয়। এতে অঞ্জলি দিতে শিক্ষার্থীরা ভিড় করে। সন্ধ্যা থেকে আলোকশোভিত মণ্ডপগুলোয় ছুটে গেছে দর্শনার্থীরা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭০টি বিভাগের অংশগ্রহণে জগন্নাথ হল মাঠের নির্ধারিত স্থানে বিভাগগুলো স্থাপন করেছে নজরকাড়া স্টল। বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন ছাত্রীহলেও ছিল দেবীর পূজা।

বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার সি ব্লকের একটি বাড়িতে বিদ্যাদেবীর পূজা অনুষ্ঠিত হয়। বসুন্ধরা সর্বজনীন পূজা কমিটি এ পূজার আয়োজন করে। এ পূজামণ্ডপে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়, ভিকারুননিসা নূন স্কুল, প্লে-পেন স্কুলসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অঞ্জলি দিতে সমবেত হয়। পূজা আয়োজক কমিটির কোষাধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাস কালের কণ্ঠকে বলেন, ষষ্ঠবারের মতো বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় এ পূজার আয়োজন করা হয়েছে। সকাল ৮টায় দেবীর পূজা শুরু হয়ে সকাল ১০টায় শেষ হয়। ১১টা থেকে শুরু হয় তিন ধাপে অঞ্জলি দেওয়ার পর্ব। তাতে কমপক্ষে এক হাজার শিক্ষার্থী অংশ নেয়। অঞ্জলির পর শুরু হয় প্রসাদ বিতরণ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলসহ বিভিন্ন পূজামণ্ডপ রাতে পরিদর্শন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।


মন্তব্য