kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বাণিজ্যমন্ত্রী বললেন

আইসিটি খাতে রপ্তানি বাড়াতে দেওয়া হবে নগদ সহায়তা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



সরকারি-বেসরকারি উভয় খাতেই বড় ধরনের পরিবর্তন এনেছে তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহার। দেশে তৈরি সফটওয়্যার রপ্তানি ও গেম তৈরি করে বিদেশি মুদ্রা আয় করছে দেশীয় অনেক প্রতিষ্ঠান।

এই খাতের রপ্তানি সম্প্রসারণের জন্য নগদ সহায়তা (ক্যাশ ইনসেনটিভ) দেওয়ার কথা ভাবছে সরকার। গতকাল শুক্রবার রাজধানীর কুড়িলসংলগ্ন ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৬-তে অনুষ্ঠিত এক সেমিনারে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এসব কথা বলেন।

‘দি রোড টু ফাইভ বিলিয়ন ডলার আইসিটি এক্সপোর্ট বাই ২০২১’ শীর্ষক সেমিনারে তোফায়েল আহমেদ বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে ৫০০ কোটি ডলারের আইসিটি পণ্য রপ্তানি করা সম্ভব হবে। বঙ্গবন্ধু খালি হাতে স্বপ্ন দেখেছিলেন। এখন তাঁর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করছেন। বঙ্গবন্ধু প্রথম বাজেট করেছিলেন মাত্র ৭৮৭ কোটি টাকা। এখন বাজেট তিন লাখ কোটি টাকারও বেশি। তিনি বলেন, দুই থেকে তিন শ কোটি টাকা ব্যয় করে যদি এর দ্বিগুণ আয় সম্ভব হয় তবে কেন সরকার সহায়তা করবে না। অবশ্যই করবে। সব খাতেই সরকার ইনসেনটিভ দিচ্ছে। আর আইসিটি খাত সরকারের প্রায়োরিটির মধ্যেই রয়েছে। তাই এই খাতে ক্যাশ ইনসেনটিভ দেওয়া হবে।

সেমিনারে মুক্ত আলোচনায় আইসিটিতে প্রণোদনার বিষয়টি সামনে আনেন বক্তারা। এর পরিপ্রেক্ষিতেই বাণিজ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন। তোফায়েল আহমেদ আরো বলেন, ‘ভিশন ২০২১-এর লক্ষ্য দুটি—ডিজিটাল বাংলাদেশ ও মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়া। আমরা ইতিমধ্যে সহস্রাব্দের উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করেছি। এখন টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের দিকে যাচ্ছি। তাই ভিশন ২০২১ বাস্তবায়ন হবে। ’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট ডেভেলপমেন্ট অথরিটির নির্বাহী সভাপতি কাজী মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘আইসিটির বিষয়ে ইনক্লুসিভ হতে হবে। এটা হচ্ছে শিক্ষার ইনক্লুসিভ, সরকারের ইনক্লুসিভ তথা সবার ইনক্লুসিভ। আমাদের বিদ্যুতের সমস্যা আর নেই। তবে দক্ষতার অভাব রয়েছে। তাই দক্ষতা বৃদ্ধিতে কাজ করতে হবে। ’

গত বুধবার শুরু হওয়া তথ্য-প্রযুক্তির এই মেলায় পর্দা নেমেছে গতকাল। ব্যাপক মানুষের সমাগমের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে তথ্য-প্রযুক্তির পণ্য ও সেবার ওই মহোৎসব। তিন দিনের এই মেলায় সব মিলিয়ে প্রায় ১৪টির মতো সেমিনারের আয়োজন হয়েছে।


মন্তব্য