kalerkantho


লৌহজংয়ে শিক্ষকের বেত্রাঘাতে শিশু শিক্ষার্থী আহত

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি   

২০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



মাদ্রাসা ফাঁকি দেওয়া ও ঠিকমতো ক্লাসে উপস্থিত না থাকার দায়ে আমিনুল ইসলাম নামের ছয় বছর বয়সী এক শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে মাদ্রাসার এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে।

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার কনকসার ইউনিয়নের কায়তারা গ্রামের কাহেতারা কওমি মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটে। সামসুল আরেফিন ওরফে উজানি হুজুর নামের অভিযুক্ত ওই শিক্ষককে গতকাল বহিষ্কার করেছে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ।

শিশু শিক্ষার্থীর বাবা মো. নুরুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, এক বছর আগে তার ছেলে মো. আমিনুল ইসলামকে গ্রামের কাহেতারা কওমি মাদ্রাসায় ভর্তি করেন। মাদ্রাসায় না আসার অভিযোগ এনে শিক্ষকরা মারধরের কারণে সে পড়তে যেতে চাইত না। গত মঙ্গলবার আমিনুল মাদ্রাসায় গেলে তার ক্লাস শিক্ষক সামসুল আরেফিন ওরফে উজানি হুজুর তাকে পিটিয়ে আহত করে রুমে আটকে রাখেন। মাদ্রাসা ছুটি হলেও ছেলে বাড়ি না ফেরায় বিকেলে নুরুল ইসলাম অন্য শিক্ষার্থীদের কাছে খবর পান তাঁর ছেলেকে উজানি হুজুর আটকে রেখেছেন। খবর পেয়ে তিনি আমিনুলকে মাদ্রাসা থেকে উদ্ধার করে দেখেন তার সমস্ত শরীরে বেতের আঘাত। পরে আমিনুলকে লৌহজং সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। গতকাল মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ জরুরি সভা ডেকে শিক্ষক সামসুল আরেফিনকে বরখাস্ত করে।


মন্তব্য