kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান

সেন্ট্রাল হাসপাতালকে তিন লাখ টাকা দণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৯ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



রাজধানীর সেন্ট্রাল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে তিন লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ ছাড়া মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ রাখায় হাসপাতালটির ওষুধের দোকান এম এস সেন্ট্রাল হাসপাতাল অ্যান্ড ফার্মেসিকে আরো এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও র‌্যাব কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত এই অভিযান পরিচালনা করেন।

একই দিন গ্রিন রোড ও তেজগাঁওয়ের মনিপুরীপাড়ায় আলাদা অভিযানে ১০ প্রতিষ্ঠানকে এক লাখ ৩৭ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। দুপুরে এপিবিএন-৫, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর অভিযানটি পরিচালনা করে।

ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের ড্রাগ সুপার সৈকত কুমার কর জানান, দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত সেন্ট্রাল হাসপাতালে অভিযান চলে। হাসপাতালটির ডায়াগনস্টিক ল্যাবরেটরির পরিবেশ ছিল অপরিষ্কার-অপরিচ্ছন্ন। তা ছাড়া দক্ষ টেকনোলজিস্ট ছাড়াই বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষার কাজ চলছিল। হাসপাতালটির ওষুধের দোকানে মেয়াদোত্তীর্ণ ১৪ ধরনের ওষুধ পাওয়া গেছে। এ ছাড়া পাশের ওষুধের দোকান এম এস মেডিসিন কর্নারে বিক্রয় নিষিদ্ধ ফুড সাপ্লিমেন্ট পাওয়া গেছে। সে কারণে দোকানটিকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এপিবিএন-৫-এর সহকারী পুলিশ সুপার সাইদুর রহমান জানান, ধানমণ্ডির গ্রিন রোডে নোংরা পরিবেশে অবৈধভাবে ব্যবসা পরিচালনা এবং ভেজাল খাদ্য পরিবেশন করার অভিযোগে আটটি প্রতিষ্ঠানকে এক লাখ ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এ অভিযানগুলো পরিচালনা করেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবু সাঈদ ও মামুন সরদার।

এ ছাড়া তেজগাঁওয়ের মনিপুরীপাড়া ও মোহাম্মদপুরের আসাদ এভিনিউয়ে দুটি প্রতিষ্ঠানকে ২৭ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এই অভিযান পরিচালনা করেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আবদুল জব্বর মণ্ডল।


মন্তব্য