kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসক জাহিদুলের আকস্মিক মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসক জাহিদুলের আকস্মিক মৃত্যু

রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ে মাসিক সভায় যোগ দিতে এসে হার্ট অ্যাটাক করে মারা গেছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসক জাহিদুল ইসলাম (৪৯)। গতকাল সোমবার সকাল ১০টার দিকে মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে পড়ে যান তিনি।

এরপর তাঁকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা ঘোষণা করেন।

জাহিদুল ইসলামের মৃত্যুর খবরে রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, গোপালগঞ্জ প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ বিভিন্ন মহলে শোকের ছায়া নেমে আসে। জেলা প্রশাসক জাহিদুল ইসলামের মৃত্যুতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ শোক প্রকাশ করেছে। মন্ত্রিপরিষদের সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম এক বিবৃতিতে তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।   

জাহিদুল ইসলাম গত ২৭ জানুয়ারি চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসক হিসেবে যোগ দেন। এর আগে তিনি ভূমি মন্ত্রণালয়ে কর্মরত ছিলেন। সিভিল সার্ভিসের ১৩তম ব্যাচের এই কর্মকর্তার বাড়ি গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার শুকতাইল গ্রামে। তিনি স্ত্রী, দুই মেয়ে এক ছেলে রেখে গেছেন।

গতকাল দুপুর ২টা ৩৫ মিনিটে তাঁর মরদেহ রাজশাহী থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসক বাংলোতে  আনা হয়। সেখানে তাঁর সহকর্মীসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ কান্নায় ভেঙে পড়ে। পরে বিকেল  সোয়া ৪টায় শহরের ফকিরপাড়া ঈদগাহ ময়দানে প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর মরদেহ গোপালগঞ্জে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে আজ মঙ্গলবার শুকতাইল ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ে দ্বিতীয় দফা জানাজা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। পরে তাঁর লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে বলে জানা গেছে।

রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল হান্নান বলেন, ‘সভাকক্ষের বাইরে বারান্দায় দাঁড়িয়ে মোবাইল ফোনে কথা বলছিলেন জেলা প্রশাসক জাহিদুল ইসলাম। এ সময় তিনি পড়ে যান। পরে তাঁকে দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া হয়। ’   

রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ এফ এম রফিকুল ইসলাম জানান, হাসপাতালে আসার আগেই জেলা প্রশাসক মারা গেছেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে জানাজা : বিকেল সোয়া ৪টার দিকে শহরের ফকিরপাড়া ঈদগাহ ময়দানে জাহিদুল ইসলামের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজার আগে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র সাইদুর রহমান বলেন, ‘চাঁপাইনবাবগঞ্জে দায়িত্ব পালনকালে তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জের সার্বিক উন্নয়ন নিয়ে যেভাবে ভাবতেন, পরিকল্পনা গ্রহণ করেছিলেন, অনেক রাজনৈতিক নেতাও সেভাবে ভাবেননি। ’

গোপালগঞ্জে শোকের ছায়া : চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে জেলা প্রশাসক জাহিদুল ইসলামের মরদেহ তাঁর গ্রামের বাড়িতে আনা হলে সেখানে শোকের ছায়া নেমে আসে। তাঁর চাচাতো ভাই শুকতাইল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘মঙ্গলবার দুপুর ১০টায় শুকতাইল ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তাঁর জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। পারিবারিক কবরস্থানে তাঁর দাফন সম্পন্ন হবে। ’


মন্তব্য