kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ফারাজ হোসেন সাহসিকতা পুরস্কার দেবে পেপসিকো

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



এ বছর থেকে পেপসিকো গ্লোবাল ‘ফারাজ হোসেন সাহসিকতা পুরস্কার’ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সঙ্গী বা সহকর্মীর প্রতি সহমর্মিতার দৃষ্টান্ত হিসেবে কোনো ব্যক্তির অনন্য সাহসিকতার স্বীকৃতি দেওয়া এই পুরস্কারের লক্ষ্য।

পুরস্কারপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে স্বীকৃতি সনদের পাশাপাশি পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হবে ১০ হাজার মার্কিন ডলার।

পুরস্কারের জন্য মনোনীত হতে কিছু মানদণ্ড নির্ধারণ করা হয়েছে। মনোনীত ব্যক্তির অনন্য সাহসের দৃষ্টান্ত থাকতে হবে, মানুষের সহায়তার জন্য অসামান্য কোনো পদক্ষেপ নেওয়ার দৃষ্টান্ত থাকতে হবে, সর্বোচ্চ নৈতিক মূল্যবোধের দৃষ্টান্ত দেখাতে হবে। তাঁকে অনূর্ধ্ব ৩০ বছর বয়সী বাংলাদেশি নাগরিক (পুরুষ বা নারী) হতে হবে। চলতি বছর থেকে এ পুরস্কার চালু হলো। আগামী ২০ বছর এ পুরস্কার দেওয়া হবে।

পেপসিকোর পক্ষ থেকে এ পুরস্কারের জন্য যোগ্য তরুণ বা তরুণীকে খুঁজতে ব্যক্তিগত ও প্রাতিষ্ঠানিক সহযোগিতা আহ্বান করা হয়েছে। কেউ যদি এমন কোনো দৃষ্টান্ত স্থাপনকারী তরুণ বা তরুণী সম্পর্কে অবগত থাকেন বা তাঁর বিষয়ে শুনে থাকেন, তবে তাঁর নাম ও বিস্তারিত তথ্য পাঠানোর আহ্বান জানানো হয়েছে। মোবাইল ফোনে ০১৭০৮১৩৩২৮৯ অথবা ০১৭০৮১৪৪২৮৯ (সকাল ৯টা থেকে রাত ৮টা) অথবা ই-মেইলে (courageaward@faraazhossain.com) যোগাযোগের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

যোগাযোগ করতে হবে ২৭ অক্টোবর ২০১৬ তারিখের মধ্যে। বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সমন্বয়ে গঠিত বিচারকমণ্ডলী প্রস্তাবিত তরুণ বা তরুণীদের মধ্য থেকে একজনকে পুরস্কারের জন্য চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত করবেন। নির্বাচিত তরুণ বা তরুণী পাবেন ‘ফারাজ হোসেন সাহসিকতা পুরস্কার’।

গত ১ জুলাই গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হন যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টার ইমোরি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ফারাজ আইয়াজ হোসেন। তিনি প্রকৃত বন্ধুত্বের দৃষ্টান্ত স্থাপন করে বন্ধুদের জন্য জীবন উৎসর্গ করেছেন, দৃঢ়তার সঙ্গে অন্যায়ের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছেন এবং ভালোবাসা ও সহানুভূতির মাধ্যমে ভিন্ন ভিন্ন গোষ্ঠী, ধর্ম ও জাতীয়তার মানুষের মানবিকতাকে একসূত্রে সংযুক্ত করেছেন। ফারাজের প্রতিনিধিত্বশীলতার মধ্য দিয়ে বিশ্ব এখন জানে বাংলাদেশ এ ধরনের মানবিক মূল্যবোধের পক্ষে দাঁড়ায়। বাংলাদেশি তরুণ বা তরুণীদের মধ্যে সাহসিকতার স্পৃহাকে উদ্দীপ্ত করতে এবং ফারাজের চেতনা জাগিয়ে তোলাই এই পুরস্কারের লক্ষ্য।


মন্তব্য