kalerkantho


বসকে যে কথাগুলো বলবেন না

১৭ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



বসকে যে কথাগুলো বলবেন না

কর্মক্ষেত্রে নিজের ব্যক্তিগত সব কথা বলা যাবে না। আর এ ক্ষেত্রে কর্মস্থলের সঙ্গে ব্যক্তিগত জীবনের একটি সীমারেখা সবারই মেনে চলা উচিত।

একইভাবে আপনার বসকেও ব্যক্তিগত জীবনের কিছু তথ্য বলার কোনো প্রয়োজন নেই। এ লেখায় তুলে ধরা হলো তেমন ১০টি বিষয়, যা নিয়ে কর্মক্ষেত্রে বসের সঙ্গে আলোচনা করা উচিত নয়।

১. আপনার আর্থিক অবস্থা খুব ভালো কিংবা খুব খারাপ যাই হোক না কেন, তা কর্মক্ষেত্রে বা বসের সঙ্গে আলোচনার প্রয়োজন নেই।

২. বর্তমান চাকরির বাইরে আপনার  নির্দিষ্ট ক্যারিয়ার প্ল্যান থাকলে তা নিজের মাঝেই রাখুন।

৩. গুজব ও অন্যান্য নেতিবাচক বিষয়গুলো নিয়ে কর্মক্ষেত্রে আলোচনা করা ঠিক নয়। কারণ তাতে ভাবমূর্তি নষ্ট হতে পারে।

৪. আপনার পেশাদারি জীবনের উচ্চাকাঙ্ক্ষা কর্মস্থলে অন্যের সঙ্গে আলোচনা না করাই ভালো। এ ধরনের আলোচনা আপনার বসকেও শঙ্কিত করে তুলতে পারে।

৫. আপনার ব্যক্তিগত জীবনে সংকট সম্পর্কে কর্মস্থলে আলোচনা করা উচিত নয়।

তবে তা কর্মস্থলে প্রভাব ফেললে ভিন্ন বিষয়।

৬. সহকর্মীদের কাজের দোষ-ত্রুটি যাই থাকুক না কেন, তাতে আপনার কাজে ব্যাঘাত না ঘটালে আলোচনা করা নিষ্প্রয়োজন।

৭. বর্তমান চাকরি নিয়ে আপনি অত্যন্ত অসন্তুষ্ট, এ আলোচনা একেবারেই করা উচিত নয়।

৮. অফিসের কোনো সহকর্মীর প্রতি আপনি দুর্বল কিংবা কোনো সম্পর্ক গড়তে আগ্রহী—এ ধরনের বিষয় নিজেদের মাঝেই রাখুন।

৯. কোনো সহকর্মী আপনাকে যদি বিশ্বাস করে গোপন কোনো কথা বলে তাহলে তা গোপনেই রাখুন।

১০. আপনার নিজের কোনো দুর্বলতা কিংবা গোপন তথ্য, যা প্রতিষ্ঠানে আপনার অবস্থান খারাপ করতে পারে তা কোনোভাবেই বসের কাছে প্রকাশ করা যাবে না।

ফোর্বস অবলম্বনে ওমর শরীফ পল্লব


মন্তব্য