kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


রাজশাহীতে হাটে ভটভটি চালককে পিটিয়ে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

১৭ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



রাজশাহী নগরীতে আওয়ামী লীগ নেতার ইজারা নেওয়া সিটি বাইপাস গরুর হাটে সবার সামনে এক ভটভটি চালককে পিটিয়ে হত্যা করেছে ইজারাদারের নিয়োজিত লাইনম্যান। গতকাল রবিবার দুপুর পৌনে ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত তমিজ উদ্দিন বিশু (৪৫) রাজশাহীর পবা উপজেলার দারুশা ইউনিয়নের মধুপুর গ্রামের আবদুল মজিদের ছেলে। অভিযুক্ত লাইনম্যান মতি দাশকে (৪০) গরু ব্যবসায়ী ও বিক্রেতারা আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। মতি নগরীর মথুরডাঙ্গা এলাকার কফিল দাশের ছেলে।

হাটটির ইজারাদার নগরীর বোয়ালিয়া থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আতিকুর রহমান কালু। তিনি প্রায় এক দশক ধরে হাটটি এককভাবে পরিচালনা করছেন।  

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ভটভটিতে করে তিনটি গরু নিয়ে দুপুর পৌনে ১টার দিকে হাটে প্রবেশ করেন চালক বিশু। দ্রুতই মালিকসহ গুরু নামিয়ে ভটভটি নিয়ে হাট থেকে বের হচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু ভিড়ের কারণে বের হতে দেরি হওয়ায় লাইনম্যান মতি বাঁশ হাতে ছুটে এসে বিশুকে ধমকাতে শুরু করেন। এ নিয়ে দুজনের কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে মতি লাঠি দিয়ে বিশুকে পেটাতে শুরু করেন। এতে ভটভটি থেকে বিশু মাটিতে পড়ে গেলেও পেটাতেই থাকেন মতি। পরে কয়েকজন ক্রেতা-বিক্রেতা তাঁকে উদ্ধার করে মাথায় পানি দেন। কিছুক্ষণ পর তাঁকে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

বিশুকে হত্যার খবর পেয়ে তাঁর পরিবারের লোকজন ছুটে আসে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে। এ সময় কান্নাজড়িত কণ্ঠে বিশুর স্ত্রী শহিদা বেগম বলেন, ‘আমার স্বামীকে যারা হত্যা করেছে, তাদের আমি বিচার চাই। ’

জানতে চাইলে হাটের ইজারাদার আতিকুর রহমান কালু কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘যে ঘটনাটি ঘটেছে, সেটি অনাকাঙ্ক্ষিত। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। তাঁকে হাটে মারপিট করতে কখনোই নির্দেশ দেওয়া হয়নি। তার পরও সে যে অন্যায়টি করেছে, আমি তার বিচার চাই। ’

নগরীর শাহ মখদুম থানার ওসি জিল্লুর রহমান বলেন, আটক মতি দাশকে থানা হাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

জানা যায়, নিহত তমিজ উদ্দিন বিশু এক ছেলে ও এক মেয়ের জনক। একটি বেসরকারি সংস্থার কাছ থেকে ঋণ নিয়ে ভটভটি কিনেছিলেন তিনি। ভটভটি চালিয়ে যে আয় হতো, তা দিয়েই ঋণ পরিশোধসহ সংসার চালাতেন তিনি।


মন্তব্য