kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ফেনীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে বাধা

ইউপি চেয়ারম্যানের সমর্থকদের গুলিতে আহত তিনজন

ফেনী প্রতিনিধি   

১৭ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ফেনীর কালিদাস পাহালিয়া নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে বাধা দেওয়ায় এলাকাবাসীর ওপর এলোপাতাড়ি গুলি চালিয়েছে সদর উপজেলার ফাজিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মুজিবুল হক রিপনের সমর্থকরা। এতে তিনজন আহত হয়েছেন।

তাঁদের স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গতকাল রবিবার দুপুরে সোনাগাজী উপজেলার নবাবপুর ইউনিয়নের রঘুনাথপুর এলাকার মোবারক ঘোনায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত তিনজন হলেন ওই এলাকার রুহুল আমিনের ছেলে মিজানুর রহমান (৩৭), তাহের আহম্মদের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৩৫) ও শাহ আলমের ছেলে মানিক (২৪)।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্র জানায়, ফেনী সদরের ফরহাদনগর ও সোনাগাজীর নবাবপুর ইউনিয়নের পাশ দিয়ে বয়ে গেছে কালিদাস পাহালিয়া নদী। তিন দিন ধরে রঘুনাথপুর এলাকার মোবারক ঘোনায় নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছেন ফাজিলপুর ইউপি চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা মজিবুল হক রিপন। এতে ওই এলাকায় বিভিন্ন স্থানে ভাঙনের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

গতকাল দুপুরে ইউপি চেয়ারম্যান রিপনের সমর্থকরা বালু তোলার যন্ত্র ও পাঁচটি নৌকা নিয়ে মোবারক ঘোনা এলাকায় যায়। তখন একদল এলাকাবাসী তাদের বাধা দেয়। বাধা উপেক্ষা করে তিনটি নৌকায় বালু ভর্তি করে কয়েকজন মুহুরীগঞ্জ সেতু এলাকায় চলে যায়। বাকি দুটি নৌকায় বালু তোলার সময় এলাকাবাসী আবার বাধা দেয়। তখন তাদের লক্ষ্য করে নৌকা থেকে চেয়ারম্যানের সহযোগী পেটকাটা বেলালের নেতৃত্বে ১২-১৩ জন সন্ত্রাসী গুলি চালায়।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মো. হুমায়ুন কবীর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি সাংবাদিকদের জানান, সোনাগাজী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বিদুর্শী সম্বৌধি চাকমা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। গতকাল বিকেল পর্যন্ত কেউ থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুল হক রিপনের সঙ্গে যোগাযোগ করে হলে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করে সাংবাদিকদের জানান, তাঁর কোনো লোকজন এ ঘটনায় জড়িত নয়।


মন্তব্য