kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


খুলনায় বেসরকারি চিকিৎসায় ধর্মঘট প্রত্যাহার

খুলনা অফিস   

১৬ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



‘যেখানেই যাই বন্ধ, কিন্তু জরুরিভাবে আল্ট্রাসনোগ্রাম ও রক্তের কয়েকটি পরীক্ষা করানো দরকার। কিছুতে পারছি না।

পুরো শহর ঘুরেও কোনো কাজ হয়নি। দুপুর হয়ে যাওয়ায় সরকারি হাসপাতালে যাওয়ার সুযোগ নেই। বড়ই বিপদে পড়েছি। অন্যায় করলে তো বিচার হবে। কিন্তু তার প্রতিবাদ করতে জনগণকে এমন দুর্ভোগে ফেলতে হবে কেন?’

গতকাল শনিবার খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সামনে নিজের অসহায় অবস্থার পাশাপাশি ক্ষোভ প্রকাশ করে এসব কথা বলছিলেন একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন প্রিন্স। চিকিৎসকের পরামর্শে রোগ পরীক্ষা করাতে তিনি গ্রাম থেকে খুলনা নগরীতে এসে এমন বিড়ম্বনায় পড়েছেন। শুধু প্রিন্সই নন, চিকিৎসকদের আকস্মিক ধর্মঘটে হাজারো মানুষ ভোগান্তির শিকার হয়।

বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ), বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিক্যাল প্র্যাকটিশনার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএমপিএ), বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিপিসিডিওএ) ডাকে শুক্রবার সকাল থেকে ধর্মঘট শুরু হয়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার জন্য গতকাল রাতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ধর্মঘটীদের বৈঠক চলছিল। সর্বশেষ খবরে জানা যায় খুলনা-২ আসনের এমপি মিজানুর রহমান মিজানের অনুরোধে এই ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়।

গত বুধবার বিভিন্ন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে র‍্যাব-১ ও র‍্যাব-৬ যৌথভাবে বেসরকারি গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, খুলনা হেলথ গার্ডেনে অভিযান পরিচালনা করে। এর প্রতিবাদে ধর্মঘট আহ্বান করা হয়েছে।

 


মন্তব্য