kalerkantho


লালমনিরহাটে ছাত্রলীগ নেতা মুশফিক হত্যা

‘নির্দোষ’ দুই কলেজ ছাত্রের মুক্তি দাবি

লালমনিরহাট প্রতিনিধি   

১৬ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



লালমনিরহাট জেলা ছাত্রলীগের সহসম্পাদক মুশফিকুর রহমানকে হত্যার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে আটক দুই কলেজ ছাত্রকে মামলা থেকে অব্যাহতির দাবি জানিয়েছে তাঁদের স্বজনরা। গতকাল শনিবার দুপুরে আদিতমারী প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান জেলহাজতে থাকা কলেজ ছাত্র মেহেদি হাসান রুবেলের বাবা আব্দুর রশিদ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আরেক ছাত্র রাজিন আহমেদ রাহীর বাবা আব্দুল্লাহ মিয়া।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গত ২২ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় জেলা ছাত্রলীগের সহসম্পাদক মুশফিকুর রহমান তাঁর দুই বন্ধু রুবেল ও রাহীকে নিয়ে উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের ত্রিমোহনী সেতুবাজার এলাকায় যান। সেখানে টাকা লেনদেন নিয়ে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে মুশফিককে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় নাজিম উদ্দিন নামের এক যুবক। আহত মুশফিককে দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনার পরপরই হাসপাতাল চত্বর থেকে পুলিশ রুবেলকে এবং সেতুরবাজার থেকে রাহীকে স্থানীয় জনতা আটক করে পুলিশে হস্তান্তর করে। পরদিন নিহতের চাচা বাদী হয়ে রুবেল, রাহী ও নিজামের বিরুদ্ধে মামলা করলে পুলিশ রুবেল ও রাহীকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে জেলহাজতে পাঠায়।

 


মন্তব্য