kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


খুলনার বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ধর্মঘট চলছে

খুলনা অফিস   

১৫ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



খুলনার ব্যক্তি মালিকানাধীন হাসপাতাল ও ক্লিনিক মালিকরা গতকাল শুক্রবার থেকে ৪৮ ঘণ্টার ধর্মঘট শুরু করেছেন। চিকিৎসকরাও ব্যক্তিগতভাবে রোগী দেখা বন্ধ করে দিয়েছেন।

নগরের একটি বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, ক্লিনিক, ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ওষুধের দোকানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার ঘটনায় এই ধর্মঘট ডাকা হয়েছে। চলবে আগামীকাল রবিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত।

চিকিৎসক ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সংগঠনের অভিযোগ, ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার নামে হয়রানি ও ক্ষমতার অপব্যবহার করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ), বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিক্যাল প্রাকটিশনার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএমপিএ) ও বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিপিসিডিওএ) ডাকে এ ধর্মঘট পালিত হচ্ছে।

সরকারি ছুটির দিনে বেসরকারি ক্লিনিক ও চিকিৎসকদের চেম্বার বন্ধ থাকায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন রোগী ও তাঁদের স্বজনরা।

র‌্যাব-৬-এর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত বুধবার র‌্যাব-১ ও র‌্যাব-৬ যৌথভাবে খুলনা নগরে বেসরকারি গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে অভিযান চালায়। অভিযানকালে হাসপাতালের প্যাথলজি বিভাগ থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ ২৩ ব্যাগ রক্ত, বিপুল পরিমাণ মেয়াদোত্তীর্ণ রি-এজেন্ট (প্যাথলজি পরীক্ষার রাসায়নিক দ্রব্য), ওষুধ ও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরিবর্তে টেকনিশিয়ানের স্বাক্ষর করা রোগ নির্ণয়ের প্রতিবেদন উদ্ধার করা হয়। এ কারণে হাসপাতালের মালিক ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. গাজী মিজানুর রহমানসহ পাঁচজনকে র‌্যাব আটক করে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাঁদের ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেন।


মন্তব্য