kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


নতুন আসবাবে মিলছে ছাড়

আইসিসিবিতে ফার্নিচার মেলা শেষ হচ্ছে আগামীকাল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



নতুন আসবাবে মিলছে ছাড়

রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরার নবরাত্রি হলে চলছে আসবাব মেলা। ছবি : কালের কণ্ঠ

ঘর সাজানো থেকে শুরু করে অফিসের প্রয়োজনীয় পণ্য, সব ধরনের আসবাব পাওয়া যাচ্ছে জাতীয় ফার্নিচার মেলায়। রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরার (আইসিসিবি) নবরাত্রি হলে আয়োজিত ওই মেলায় প্রতিদিন তিন হাজার থেকে চার হাজার দর্শক ও ক্রেতা আসছে তাদের পছন্দমতো আসবাব দেখতে এবং কিনতে।

মেলা উপলক্ষে পণ্যের দামের ওপর ৫ থেকে ৩০ শতাংশ ছাড়ের পাশাপাশি স্বল্প আয়তনের গৃহে ব্যবহার উপযোগী আসবাবও নিয়ে এসেছে কোনো কোনো ফার্নিচার বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান।

মেলায় অংশ নেওয়া বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দেশে তৈরি এসব আসবাব বিশ্বমানের নকশায় তৈরি করা। আসবাবের সঙ্গে হোম ডেকোরেটর ও ইন্টেরিয়র সামগ্রীও পাওয়া যাচ্ছে মেলায়।

আয়োজকরা জানিয়েছে, গত ১২টি মেলা বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজনের পর এবারই প্রথম ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় মেলার আয়োজন করা হয়। এই মেলায় প্রতিদিন গড়ে তিন হাজার থেকে চার হাজার দর্শক ও ক্রেতার সমাগম ঘটায় সন্তোষ প্রকাশ করেছে তারা।

জানা গেছে, ক্রেতাদের রুচি ও চাহিদা অনুযায়ী প্রতিদিনই নতুন নতুন আসবাব প্রদর্শন করছে মেলায় অংশ নেওয়া বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানগুলো। মেলা চলবে আগামীকাল শনিবার পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মেলা সবার জন্য খোলা থাকবে। মেলায় প্রবেশের জন্য কোনো টিকিটের প্রয়োজন নেই।

মেলায় অংশ নেওয়া বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতিনিধিরা জানায়, দেশের আসবাবশিল্প এখন বড় শিল্প হিসেবে বিকশিত হচ্ছে। দেশের চাহিদা পূরণ করে বিদেশেও রপ্তানি হচ্ছে। এ ছাড়া এ খাতে ২৫ লাখ মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে।

গত মঙ্গলবার পাঁচ দিনের ১৩তম জাতীয় ফার্নিচার মেলা ২০১৬-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন। বাংলাদেশ ফার্নিচার শিল্প মালিক সমিতি এবং ডিজাইন অ্যান্ড টেকনোলজি সেন্টার লিমিটেড এই মেলা যৌথভাবে আয়োজন করেছে।

মেলায় বেডরুমে ব্যবহারের জন্য সুসজ্জিত খাট এবং ওয়ার্ডরোবের সেট, ড্রেসিং টেবিল, ডাইনিং রুমের জন্য ডাইনিং টেবিল, ড্রয়িং রুমের জন্য সোফাসেট, ক্যাবিনেট আলমারিসহ সব ধরনের আসবাবপত্রসহ গৃহসজ্জার টুকিটাকি পণ্য প্রদর্শন করছে দেশের ২৬টি প্রতিষ্ঠান।

উদ্যোক্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এই খাতের ৪০ হাজার কোটি টাকার বিশ্ববাজার রয়েছে। এর মধ্যে চীন একাই প্রায় ৫২ শতাংশ বাজার দখল করে আছে। গত অর্থবছরে এই খাত থেকে প্রায় ৪০০ কোটি টাকার রপ্তানি আয় হয়েছে। রপ্তানির ওপর সরকারের ১৫ শতাংশ নগদ সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা উদ্যোক্তাদের আশান্বিত করেছে।

মেলায় হাতিল দিচ্ছে ৫ শতাংশ ছাড়, হাওলাদার ফার্নিচার ও পারটেক্স দিচ্ছে ১৫ শতাংশ ছাড়, কিং ফার্নিচার দিচ্ছে ২০ শতাংশ ছাড়, ওমেগা দিচ্ছে ২৫ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়, অ্যাথেনাস দিচ্ছে সর্বোচ্চ ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়। হক ফ্যামিলি মার্ট দিচ্ছে সমান মাসিক কিস্তিতে আসবাব কেনার সুযোগ। ভিসা কার্ডধারী গ্রাহকরা এখান থেকে কিস্তিতে আসবাব কিনতে পারবে।

মেলা উপলক্ষে হাতিল নিয়ে এসেছে বিশেষ ধরনের একটি সোফাসেট। এই সোফাসেটটি খুবই স্বল্প আয়তনের গৃহে ব্যবহার করা যায়। হাতিলের সহকারী ব্যবস্থাপক ইনচার্জ রিটেইল লায়লা ইসরাত জাহান বলেন, ‘এই সোফাটি গুটিয়ে রাখা যায়, আবার অতিথি এলে সুন্দরভাবে সোফাটি ব্যবহার করা যায়। এতে ঘরের বেশ খানিকটা জায়গা বাঁচিয়ে দেয়। ’ মেলায় নতুন নকশার দরজা নিয়ে এসেছে ব্রাদার ফার্নিচার।


মন্তব্য